আজ রবিবার, ২২ জুলাই ২০১৮ ইং, ০৭ শ্রাবণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ



বিএনপির কালো পতাকা প্রদর্শনে পুলিশের বাধা, লাঠিচার্জ, জল কামান থেকে পানি নিক্ষেপ

Published on 24 February 2018 | 1: 21 pm

সমাবেশের অনুমতি না দেওয়ার প্রতিবাদে বিএনপির পূর্ব ঘোষিত কালো পতাকা প্রদর্শন কর্মসূচি পুলিশের বাধায় পণ্ড হয়ে গেছে।

কর্মসূচি পালন করতে আজ শনিবার সকাল থেকে দলীয় কার্যালয়ে জড়ো হন বিএনপির নেতাকর্মীরা। কিন্তু পুলিশ তাদের দাঁড়াতেই দেয়নি। জল কামান থেকে পানি নিক্ষেপ করে বিএনপি নেতাকর্মীদের ছত্রভঙ্গ করে দেওয়া হয়। ঘটনাস্থল থেকে আটক করা হয়েছে ৪২ জনকে। এদের মধ্যে জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের কয়েকজন সদস্যও রয়েছেন।

আজ বেলা ১১টায় দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে এই কর্মসূচি শুরু হওয়ার কথা থাকলেও সকাল সোয়া ১০টার দিকে কিছু নেতাকর্মী জড় হয়ে কালো পতাকা প্রদর্শন করে। এ সময় তারা খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে নানা স্লোগানও দেয়।

এর প্রায় আধা ঘণ্টা পর হঠাৎ পুলিশ এই নেতাকর্মীদের উপর লাঠিচার্জ করে। এ সময় আহত হন বেশ কয়েকজন মহিলা দল সদস্য। গ্রেপ্তার করা হয় অনেককেই।

বেলা ১১টার দিকে পুলিশি বাধা উপেক্ষা করে ফের সড়কে এসে কালো পতাকা প্রদর্শন করতে চাইলে পুলিশ আবারেও নেতাকর্মীদের ওপর চড়াও হয়। এ সময় পাঁচ নেতাকর্মীকে আটক করার অভিযোগ করেছে বিএনপি। এর আগে সকাল ১০টায় নয়াপল্টন দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয় ও এর আশপাশের এলাকা থেকে আরো ১২ নেতাকর্মীকে আটক করার সংবাদও পাওয়া গেছে।

এ বিষয়ে পল্টন থানার পরিদর্শক (অপারেশন) সিদ্দিকুর রহমান  জানান, তাঁর জানামতে এখন পর্যন্ত ৩০ জনকে আটক করা হয়েছে। এ সংখ্যা বাড়তেও পারে। তবে কোন অভিযোগে এদের আটক করা হয়েছে সে সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, অনুমতি ছাড়া জমায়েত এবং পুলিশের ওপর হামলার অভিযোগে এদের আটক করা হয়েছে।

দলটির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অবস্থান করছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা জয়নুল আবদীন ফারুকসহ বিভিন্ন পর্যায়ের শতাধিক নেতা।

গত বৃহস্পতিবার ঢাকায় সমাবেশের অনুমতি না দেওয়ার প্রতিবাদে আজ ঢাকায় ‘কালো পতাকা’ প্রদর্শন কর্মসূচি ঘোষণা করে বিএনপি। দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বৃহস্পতিববার সংবাদ সম্মেলনে এই ঘোষণা দিয়ে বলেন, ‘ঢাকায় আমাদের সমাবেশ করার কথা ছিল, কিন্তু পুলিশ অনুমতি না দেওয়ার প্রতিবাদে আমরা শনিবার ঢাকায় কালো পতাকা মিছিলের কর্মসূচি ঘোষণা করেছিলাম। সেটা সংশোধন হয়ে কালো পতাকা প্রদর্শন কর্মসূচি হবে। বিএনপির সব পর্যায়ের নেতাকর্মী, জাতীয়তাবাদী শক্তি ও গণতন্ত্রকামী মানুষজন যে যেখানে যে অবস্থানে থাকবে তারা কালো পতাকা প্রদর্শন করবে- এই আহ্বান আমরা করছি।’


এখানে খুজুন


আরও পড়ুন