আজ শনিবার, ১৮ আগষ্ট ২০১৮ ইং, ০৩ ভাদ্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ



ড্রোন চালু করবে ভারত বাংলাদেশ সীমান্তে নজরদারিতে

Published on 03 February 2018 | 6: 12 am

ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে  চোরা চালান, অবৈধ অনুপ্রবেশ, জাল নোট, আগ্নেয়াস্ত্র এবং মাদকদ্রব্য পাচার রুখতে বিএসএফ আগামী বছরের মধ্যেই স্মার্ট-ফেন্সিংয়ের সঙ্গে কাজে লাগাবে মনুষ্য চালকবিহীন আকাশযান ইউএভি। বিএসএফের মহাপরিচালক কে.কে. শর্মা সংবাদ মাধ্যমকে এ কথা জানিয়ে বলেন. কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্প্রতি এ বিষয়ে বিএসএফের প্রস্তাব অনুমোদন করেছে। আসামের ব্রহ্মপুত্র নদ বরাবর নদী-নালা অধ্যুষিত ৪৮ কিলোমিটার দীর্ঘ ধুবড়ি সীমান্ত এলাকায় দেশীয় প্রযুক্তির সাহায্যে কাঁটাতারের স্মার্ট সীমান্ত বেড়া বসানো হবে চলতি বছরের মধ্যেই।
কে.কে. শর্মা বলেন, আপাতত চারটি মনুষ্য চালকবিহীন আকাশযান কেনার অনুমতি চাওয়া হয়েছে সরকারের কাছে, যেগুলো মোতায়েন করা হবে ৪ হাজার ৯৬ কিলোমিটার দীর্ঘ ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের অতি স্পর্শকাতর পশ্চিমবঙ্গ, আসাম, মেঘালয় ও ত্রিপুরায়। পাশাপাশি অতিরিক্ত আরো পাঁচটি বিএসএফ ব্যাটেলিয়ান (মোট সদস্য পাঁচ হাজার) গড়ে তোলার অনুমতি চেয়েছে সরকারের কাছে।
বিএসএফ প্রধান বলেন, সীমান্ত এলাকায় অপরাধ দমনে বাংলাদেশের বর্ডার গার্ডের (বিজিবি) সঙ্গে ভারতীয় বিএসএফের পারস্পরিক সম্পর্ক খুবই আন্তরিক। সীমান্ত অপরাধ দমনে বাংলাদেশিদের নিহত হবার সংখ্যা কমিয়ে আনার চেষ্টা করা হচ্ছে। ভারতের সীমান্ত নিরাপত্তা বাহিনীর ওপর হামলার ঘটনা রোধে ভারত-বাংলাদেশ একইসঙ্গে যৌথ অপারেশন চালাবে। কারণ, বিএসএফ পাল্টা গুলি চালালে বাংলাদেশিদের হতাহতের সংখ্যা বাড়তে পারে। আশা করা যায়, এর ফলে পরিস্থিতির ওপর ইতিবাচক প্রভাব পড়বে। গবাদি পশু পাচার সম্পর্কে বিএসএফের মহাপরিচালক বলেন, গবাদি পশু পাচারের সংখ্যা ক্রমশই কমে আসছে। খবর ডয়চেভেলে’র


এখানে খুজুন


আরও পড়ুন