আজ সোমবার, ১৬ জুলাই ২০১৮ ইং, ০১ শ্রাবণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ



ম্যাজিস্ট্রেট ওসিসহ চারজনকে হাইকোর্টে তলব

Published on 15 January 2018 | 4: 29 am

চট্টগ্রামের লোহাগাড়ায় এক ব্যক্তিকে পুলিশ হেফাজতে থাকা অবস্থায় ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে সাজা দেয়ার ঘটনায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এবং ওসিসহ চারজনকে তলব করেছেন হাইকোর্ট।

২৮ জানুয়ারি সংশ্লিষ্টদের হাইকোর্টে হাজির হয়ে ব্যাখ্যা জানাতে তলব করা হয়।এরা হলেন, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট (ইউএনও) মাহবুব আলম, ওসি মো. শাহজাহান, এসআই হেলাল খান ও ওয়াসিম।

রোববার বিচারপতি সৈয়দ মোহাম্মদ দস্তগীর হোসেন ও বিচারপতি মো. আতাউর রহমান খানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট ডিবিশন বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

দুই পুরিয়া গাঁজা পাওয়ার অভিযোগে আট মাসের সাজাপ্রাপ্ত বেলাল উদ্দিনের রিট আবেদনের প্রেক্ষিতে এ আদেশ দেয়া হয়।

আদালতে আবেদনকারীর পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ।মনজিল মোরসেদ বলেন, বেলাল উদ্দিনকে অন্য একটি মামলায় ২০১৭ সালের ১৩ অক্টোবর গ্রেফতার করে পরদিন আদালতে চালান করে পুলিশ। কিন্তু ১৪ অক্টোবর ভ্রাম্যমাণ আদালতের আদেশ অনুযায়ী দেখানো হয়, ওই দিন ১২টা ১০ মিনিটে দুই পুরিয়া গাঁজাসহ তার গ্রামের বাড়ি থেকে ধরা হয়। এতে বোঝা যায়, পুলিশের হেফাজতে থাকা অবস্থায় ভ্রাম্যমাণ আদালত বেলাল উদ্দিনকে সাজা দেয়, যা সংবিধান ও আইনের পরিপন্থী।

তিনি আরও বলেন, ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে দেয়া সাজা কেন বাতিল করা হবে না, এ আদালতের সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে কেন আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে না এবং বেলাল উদ্দিনকে ২০ লাখ কেন ক্ষতিপূরণ দেয়া হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে রিট আবেদনকারীকে ২০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ কেন দেয়া হবে না, তা-ও জানতে চাওয়া হয়েছে স্বরাষ্ট্রসচিব, লোহাগাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, ওই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাসহ পাঁচ বিবাদীর কাছে। ওই পাঁচজনকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।


এখানে খুজুন


আরও পড়ুন