আজ রবিবার, ১৯ আগষ্ট ২০১৮ ইং, ০৪ ভাদ্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ



রিহ্যাব মেলা ক্রেতা-দর্শকে জমজমাট

Published on 24 December 2017 | 10: 26 am

মানুষের মৌলিক চাহিদার অন্যতম হলো আবাসন। ছোট হোক বা বড় হোক নিজের একটি বাড়ির স্বপ্ন কার না থাকে। স্বপ্নের এ ঠিকানা খুঁজতে ক্রেতা-দর্শকদের ভিড়ে শুক্রবার জমজমাট হয়ে ওঠে রিহ্যাব মেলা। শুক্রবার মেলায় গিয়ে দেখা যায়, সাধ্যের মধ্যে পছন্দের ফ্ল্যাট, প্লট খুঁজে পেতে আগ্রহীরা ছুটছেন এক স্টল থেকে অন্য স্টলে। নানা অফার ও আকর্ষণীয় প্রকল্পগুলো উপস্থাপন করতে অংশগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর কর্মকর্তাদের দম ফেলার ফুরসত ছিল না।
পাঁচ দিনব্যাপী রিহ্যাব মেলার দ্বিতীয় দিন ছিল শুক্রবার। ছুটি থাকায় সকাল থেকেই ক্রেতা-দর্শনার্থীদের আনাগোনা বাড়তে থাকে। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ক্রেতাদের পদচারণায় মুখরিত হয়ে ওঠে মেলা প্রাঙ্গণ। বিকেলে মেলা প্রাঙ্গণজুড়ে তিলধারণের ঠাঁই ছিল না।
ক্রেতা-দর্শকরা জানান, মেলায় এক ছাদের নিচে সব পণ্য ও সেবা পাচ্ছেন তারা। একসঙ্গে অনেক প্রতিষ্ঠানকে পেয়ে যাচাই-বাছাইয়ের সুযোগ কাজে লাগাতে চান তারা। নিজেদের সামর্থ্যের মধ্যে পছন্দের আবাস খুঁজে নেওয়ার বড় সুযোগ এটি। এ জন্য স্টলগুলোতে ঘুরে ক্রেতা-দর্শকরা জানতে চাচ্ছেন কোন কোম্পানি কী সুবিধা দিচ্ছে।
বিক্রেতারা বলেন, মেলায় একসঙ্গে অনেক ক্রেতা পাওয়ায় খুশি তারাও। অন্য সব বছরের চেয়ে এবার মেলায় ভিড় অনেক বেশি। মেলায় আসা দর্শনার্থীদের মধ্যে অনেকে কেনাকাটা করছেন। আবার অনেকে তথ্য সংগ্রহ করছেন। বিক্রেতারা জানালেন, কাল-পরশু বিক্রি আরও বাড়বে।
রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) রিয়েল এস্টেট অ্যান্ড হাউজিং অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (রিহ্যাব) শীতকালীন আবাসন মেলা চলবে আগামী সোমবার পর্যন্ত। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত দর্শনার্থীদের প্রবেশের সুযোগ রয়েছে। এবার মেলায় ২০৫টি স্টলে বিভিন্ন আবাসন কোম্পানি তাদের পণ্য ও সেবা প্রদর্শন করছে। রিহ্যাবের সদস্য প্রতিষ্ঠান ছাড়াও বেশ কিছু নির্মাণসামগ্রী ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান মেলায় অংশ নিয়েছে।
মেলা ঘুরে দেখা গেছে, পছন্দের ফ্ল্যাট ও প্লট খুঁজে পেতে কোন এলাকায় কত দাম, বুকিং খরচ, প্রথম পরিশোধ, কিস্তির সুবিধা, প্রকল্পের অবস্থান ও কী কী সুবিধা রয়েছে এসব খোঁজ-খবর নিচ্ছেন ক্রেতারা। মিরপুর থেকে এসেছেন বেসরকারি  এক ব্যাংক কর্মকর্তা  তিনি জানান, আগের চেয়ে ফ্ল্যাট ও প্লটের দাম কিছুটা বেড়েছে বলে মনে হচ্ছে। এটা আরও বাড়তে পারে বলে তার ধারণা। এ জন্য তিনি এখনই পছন্দ করে কিনতে চান।
মেলায় আবাসন প্রতিষ্ঠানগুলো দিচ্ছে নানা উপহার আর ছাড়। নামমাত্র অগ্রিম পরিশোধে ফ্ল্যাট বুকিং দেওয়ার সুযোগ আছে। প্লট ও ফ্ল্যাটের এককালীন মূল্য পরিশোধে রয়েছে ১০ থেকে ২৫ শতাংশ পর্যন্ত বিশেষ ছাড়। দীর্ঘমেয়াদি কিস্তিতেও প্লট ও ফ্ল্যাট বিক্রয় করছে অনেক কোম্পানি। এদিকে মেলায় বিভিন্ন ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান সাড়ে ৮ শতাংশ থেকে ১০ শতাংশ পর্যন্ত সুদে গৃহঋণ দিচ্ছে। মেলায় শুধু ফ্ল্যাট ও প্লট নয়, অভ্যন্তরীণ সাজসজ্জার জন্য বিভিন্ন পণ্যসামগ্রী প্রদর্শন করা হচ্ছে। রয়েছে ৫০ শতাংশ ছাড়ে ফার্নিচার।
ইস্টার্ন হাউজিংয়ের বিপণন বিভাগের প্রধান মোহাম্মদ ফরহাদুজ্জামান  বলেন, মেলায় যারা আসছেন তাদের বেশিরভাগই কেনাকাটার জন্য আসছেন। তিনি বলেন, গতকাল তাদের কোম্পানি ৮টি ফ্ল্যাট বিক্রি করেছে। এর মধ্যে একটি বড় ফ্ল্যাট, বাকিগুলো মাঝারি আকারের।
আনোয়ার ল্যান্ডমার্কের বিক্রয় ও বিপণন বিভাগের সহকারী ব্যবস্থাপক ফারুক হোসাইন বলেন, মেলায় ক্রেতাদের ছোট ও মাঝারি ফ্ল্যাটের চাহিদা বেশি। মেলায় আসা ক্রেতাদের বেশিরভাগই এ ধরনের ফ্ল্যাটের খোঁজ নিচ্ছেন। এ জন্য তারা ক্রেতাদের পছন্দের বিভিন্ন আকারের ফ্ল্যাটের নকশা প্রদর্শন করছেন।


এখানে খুজুন


আরও পড়ুন