টি-টোয়েন্টির ইতিহাসের রেকর্ড ধসিয়ে দেওয়া ক্রিস গেইলের এক ইনিংস , এ যেন ছক্কা-বৃষ্টি

প্রথম কয়েকটা ম্যাচ ‘ব্যর্থ’ হলেন।দুটো ফিফটি করলেন বটে, সেটা ঠিক তার মেজাজের সাথে যায় না। ফলে আওয়াজ উঠলো যে, ক্রিস গেইল এবার আর পারছেন না। নক আউট পর্ব শুরু হতেই সেই আওয়াজ বদলে গেল। এলিমিনেটরে বিপিএলের ইতিহাসের সবচেয়ে বড় ইনিংসটা খেলে ফেললেন। তারপরও গেইলের সেরাটা গেইল জমিয়েই রেখেছিলেন ফাইনালের জন্য। শুধু বিপিএলের ইতিহাসের সেরা নয়, টি-টোয়েন্টির ইতিহাসের নানা রেকর্ড ধসিয়ে দেওয়া এক ইনিংস খেললেন গতকাল। আর সেই ইনিংসেই প্রথমবারের মত বিপিএল জিতে নতুন চূড়ায় পৌঁছে গেল রংপুর রাইডার্স।
টসে জিতে রংপুরকে ব্যাটিংয়ে পাঠিয়েছিলো ঢাকা ডায়নামাইটস। ব্যক্তিগত ৩ রান নিয়ে সাকিবের শিকার হয়ে ফেরেন আগের ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান জনসন চার্লস। রংপুরের স্কোর তখন ১ উইকেটে ৫ রান। সেই স্কোরটাকেই ১ উইকেটে ২০৬ রানে পরিণত করে ফেললেন দুই ব্যাটিং দানব ক্রিস গেইল ও ব্রেন্ডন ম্যাককালাম। সাবেক নিউজিল্যঅন্ড অধিনায়ক ও বিশ্বের দ্বিতীয় সেরা টি-টোয়েন্টি ব্যাটসম্যান ম্যাককালাম বেশ শান্তই ছিলেন; অন্তত গেইল এবং আগের দিন নিজের ইনিংসের তুলনা। ৪৩ বলে ৪টি চার ও ৩টি ছক্কায় সাজানো ৫১ রানের ইনিংস খেলে অপরাজিত রইলেন। আর দিনের সবটুকু আলো তোলা রইলো ক্রিস গেইলের জন্য।
৬৯ বলে ১৪৬ রানের অপরাজিত ইনিংস খেললেন। এই দানবীয় ইনিংসে তার ৫টি মাত্র চার এবং বিপরীতে ১৮টি ছক্কা!
স্রেফ পরিসংখ্যানই বলছে, এমন দানবীয় ইনিংস গেইলসহ বিশ্বের কোনো ব্যাটসম্যান কোনো কালে খেলেননি। অন্তত এমন ছক্কাবৃষ্টি দুনিয়ায় আর কখনো দেখা যায়নি। এর আগে এক ইনিংসে সর্বোচ্চ ১৭টি ছক্কার রেকর্ড ছিল এই গেইলেরই। ২০১৩ সালের আইপিএলে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুর হয়ে পুনে ওয়ারিয়র্সের বিপক্ষে অপরাজিত ১৭৫ রানের ইনিংস খেলার পথে ১৭টি ছক্কা মেরেছিলেন। এবার বিশ্ব রেকর্ডটা নতুন করে লিখলেন ১৮টি ছক্কা মেরে।
দৈর্ঘ্যের দিক থেকে এর চেয়ে বড় ইনিংস গেইলের নিজেরই আছে। তবে বিপিএলে এটাই সর্বোচ্চ রানের ইনিংস। খুলনার বিপক্ষে এলিমিনেটরে তার খেলা ১২৬ রানের ইনিংস ছিল সর্বোচ্চ; এবার নিজেই নিজেকে ছাপিয়ে আরো অনেকটা দূরে চলে গেলেন।
বিপিএলে এটা ছিল গেইলের পঞ্চম সেঞ্চুরি। বলে রাখা উচিত যে, গেইল ছাড়া এই টুর্নামেন্টে আর কারো একাধিক সেঞ্চুরিই নেই। সব ধরনের টি-টোয়েন্টি মিলিয়ে এটা ছিল গেইলের ২০তম সেঞ্চুরি। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ক্লিংগার, লুক রাইট ও ব্রেন্ডন ম্যাককালামের আছে ৭টি করে সেঞ্চুরি! এই ১৮টি ছক্কা মারার ভেতর দিয়ে ৮১৯টি ছক্কা হলো তার টি-টোয়েন্টিতে। কাছাকাছি থাকা কাইরন পোলার্ডের ছক্কা ৫০৯টি। এই ইনিংসের ফলে মোট রানে গেইল ১১ হাজার ছাড়িয়ে গেলেন। এখন তার টি-টোয়েন্টিতে মোট রান ১১,০৫৬। দুনিয়াতে আর কারো ৯ হাজার রানও নেই!
minhaj rudvi

Leave a Reply

Top
%d bloggers like this:
Web Design BangladeshBangladesh Online Market