আজ মঙ্গলবার, ১৭ জুলাই ২০১৮ ইং, ০২ শ্রাবণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ



অনিয়ম ও জালিয়াতি ইস্যুতে এনআরবিসি ব্যাংকের চেয়ারম্যানের পদত্যাগ

Published on 11 December 2017 | 4: 35 am

ঋণ সংক্রান্ত অনিয়ম ও বিভিন্ন ধরনের জালিয়াতি ইস্যুতে দীর্ঘদিন ধরে সঙ্কটের মধ্যে ছিল এনআরবি কমার্শিয়াল (এনআরবিসি) ব্যাংক। এরই মধ্যে রবিবার পদত্যাগ করেছেন ব্যাংকটির চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার ফরাছত আলী। নতুন চেয়ারম্যান হিসাবে নির্বাচিত হয়েছেন তমাল এসএম পারভেজ। আর ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালককে (এমডি) বাধ্যতামূলক সাময়িক ছুটিতে পাঠানো হয়েছে। পরিচালনা পর্ষদের অন্যান্য কমিটির প্রধানরাও পদত্যাগ করেছেন। ওই সব কমিটিতে নতুন নির্বাচন হয়েছে।
এ বিষয়ে ব্যাংকের নতুন চেয়ারম্যান তমাল এসএম পারভেজ ইত্তেফাককে বলেন, ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান ও অন্যান্য কমিটির সদস্যরা পদত্যাগ করেছেন। নতুন করে এসব কমিটি গঠিত হয়েছে। এমডিকেও সাময়িক ছুটি দেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, এ ব্যাংকের ব্যবসায়িক কোন সঙ্কট নেই। ইমেজ সঙ্কট আছে নতুন কমিটির মাধ্যমে সে সঙ্কট দূর হবে।
এনআরবিসি ব্যাংকের বিদ্যমান সঙ্কট নিয়ে আলোচনা করার রবিবার রাজধানীর গুলশানে একটি জরুরি সভা ডাকা হয়। ওই সভায় পরিচালনা পর্ষদের ভাইস চেয়ারম্যান পদ থেকে তৌফিক রহমান চৌধুরী পদত্যাগ করলে ওই পদে নির্বাচিত হয়েছেন মোহাম্মদ শহীদ ইসলাম। নির্বাহী কমিটির (ইসি) চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন আবু বকর চৌধুরী। ওই পদে ছিলেন মোহাম্মদ মঞ্জুরুল ইসলাম। নুরুন নবী অডিট কমিটির চেয়ারম্যান পদ থেকে পদত্যাগ করায় সেখানে নির্বাচিত হয়েছেন রফিকুল ইসলাম মিয়া আরজু। এছাড়া রিস্ক ম্যানেজমেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান হয়েছেন আদনান ইমাম। ওই পদে ছিলেন সৈয়দ মুন্সেফ আলী। এমডির দেওয়ান মুজিবুর রহমানের ছুটি কার্যকর হলে সেখানে ভারপ্রাপ্ত এমডি হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন কাজী মো. তালহা।
গত ৬ ডিসেম্বর এমডি দেওয়ান মুজিবুর রহমানকে অপসারণ করে বাংলাদেশ ব্যাংক। পরদিন অপসারণাদেশ স্থগিত করেন হাইকোর্ট। এমডির অপসারণকে কেন্দ্র করে জরুরি বোর্ড সভা ডাকে ব্যাংকটি। ওই সভা করার জন্য গত শনিবার রাজধানীর একটি হোটেল আলোচনায় বসেন ব্যাংকটির পরিচালনা পর্ষদের সদস্যরা। ওই আলোচনায় পুনর্গঠন বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়।
উল্লেখ্য, ব্যাংক কোম্পানি আইনের ৪৬ ধারায় দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় গভর্নরের অনুমোদনের পর দেওয়ান মুজিবুর রহমানকে অপসারণ করে চিঠি পাঠায় বাংলাদেশ ব্যাংক। এছাড়া আগামী ২ বছর কোনো ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের এমডি পদে তিনি যোগদান করতে পারবেন না বলেও নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়।


এখানে খুজুন


আরও পড়ুন