আজ শুক্রবার, ২৭ এপ্রিল ২০১৮ ইং, ১৪ বৈশাখ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ



‘সেরিব্রাল ভাস্কুলাইটিস’ নামে এর জটিল রোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান আনিসুল হক

Published on 01 December 2017 | 2: 55 am

সাড়ে তিনমাস লন্ডনের হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকার পর বৃহস্পতিবার রাতে ৬৬ বছর বয়সে মৃত্যুবরণ করেছেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আনিসুল হক। তার মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী ও বিশিষ্টজনেরা।
‘সেরিব্রাল ভাস্কুলাইটিস’ নামে এর জটিল রোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান মেয়র। এটি মস্তিষ্কের রক্তনালীর প্রদাহজনিত একটি রোগ। গত ২৯ জুলাই নাতির জন্মদিন উপলক্ষ্যে স্ত্রী রুবানা হকসহ যুক্তরাজ্যে যান আনিসুল হক। সেখানেই অসুস্থ হয়ে পড়লে দ্রুত লন্ডনের একটি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয় মেয়রকে। শেষ পর্যন্ত ওই হাসপাতাল থেকে আর জীবীত ফেরা হলো না তার। সাড়ে তিনমাস এ হাসপাতালেই চিকিসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার মারা যান তিনি।
সেরিব্রাল ভাস্কুলাইটিস রোগটির আরেক নাম সেন্ট্রাল নার্ভাস সিস্টেম ভাস্কুলাইটিস। এটি খুবই জটিল এবং বিরল রোগ। মস্তিস্কের রক্তনালীতে সাধারণত এ ধরণের সমস্যা দেখা যায় না। এ রোগটি হওয়ার কারণে অনেক সময় মস্তিষ্কের রক্তনালী ক্ষতিগ্রস্থ হয় এবং রক্ত প্রবাহে বাধার সৃষ্টি হয়। মস্তিস্কে যে এলাকায় রক্ত চলাচল বাধাপ্রাপ্ত হয়, সেখানে অল্প সময়েই ব্যাপক ক্ষতি হতে পারে। অনেক সময় মস্তিস্কে রক্তক্ষরণের মতো ভয়াবহ ঘটনাও ঘটতে পারে। অনেক সময়ই প্রাথমিকভাবে এ ভয়াবহ রোগটির তেমন কোনো উপসর্গ চোখে পড়ে না।
সেরিব্রাল ভাস্কুলাইটিস রোগীদের মস্তিস্ক ছাড়াও সব সময় দুর্বল অনুভব করা, অনুভূতি লোপ পেতে থাকা, মাথা ব্যথা, স্কিন র‌্যাশ বা ত্বকে দানা বের হওয়া, জয়েন্ট পেইন, চলাফেরা করতে কষ্ট হওয়া, এমনকি আচরণগত সমস্যার মতো নানাবিধ নিউরোলিজিক্যাল সমস্যা দেখা দিতে পারে।
বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বিভিন্ন রোগের জটিলতা হিসাবেও সেরিব্রাল ভাস্কুলাইটিস হতে পারে এবং এটির ডায়ালাইসিসও বেশ দুরূহ।
লন্ডনে হঠাৎ করে অসুস্থ হয়ে পড়ার আগে ঢাকায় আনিসুল হক বিভিন্ন ডাক্তার দেখিয়েছেন বলে জানা গেছে। ঢাকার ডাক্তাররাও মেয়রকে উন্নত চিকিৎসার তাগিদ দেন।
লন্ডনে চিকিৎসাধীন থাকার সময়ও দফায় দফায় মেয়রের শারীরীক অবস্থান উন্নতি-অবনতি হয়। ১৩ আগষ্ট হাসপাতালে ভর্তির পর থেকেই তাকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) রেখে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছিল। ৩১ অক্টোবর অবস্থার কিছুটা উন্নতি হলে তাকে আইসিইউ থেকে রিহ্যাবিলিটেশন সেন্টারে স্থানান্তর করা হয়। গত দুইদিনে তার অবস্থান মারাত্নক অবনতি হলে তাকে আবারও আইসিইউতে স্থানান্তর করা হয় এবং তার স্ত্রী রুবানা হক স্বামীর জন্য দেশবাসীর কাছে দোয়া চান। ৩০ নভেম্বর বৃহস্পতিবার বিকেলে আনিসুল হকের স্ত্রী রুবানা সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘তার (আনিসুল হক) ফুসফুসে সংক্রমণ হয়েছে। অবস্থা ভালো নয়। তার জন্য জন্য দোয়া করুন।’
টিভি ব্যাক্তিত্ব থেকে ব্যাবসায় ঝুঁকেছেন আনিসুল হক। বাংলাদেশের সনামধন্য ব্যাবসায়ী হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে পেরেছিলেন তিনি। েএক এগারোর সেনা সমর্থিত তত্বাবধায়ক সরকারের সময় এফবিসিসিআই’র সভাপতি ছিলেন তিনি। ছিলেন বিজিএমইএ’র সভাপতিও। ঢাকায় গত সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের সময় হঠাৎ করেই রাজনীতির মাঠে অগমন ঘটে তার। ঢাকা উত্তর সিটি কের্পোরেশন থেকে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করে মেয়র নির্বাচিত হন তিনি।


Advertisement

আরও পড়ুন