আজ সোমবার, ২৩ জুলাই ২০১৮ ইং, ০৮ শ্রাবণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ



কমরেড আ ফ ম মাহবুবুল হকের মৃত্যুতে জাসদ নেতা নুরুল আকতারের শোক প্রকাশ

Published on 10 November 2017 | 12: 26 pm

বামপন্থি রাজনীতির পুরোধা ব্যক্তিত্ব, বীর মুক্তিযোদ্ধা, খ্যাতিমান রাজনীতিবিদ, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দলের (বাসদ-মাহবুব) আহ্বায়ক আ ফ ম মাহবুবুল হক এর মৃত্যুতে জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক  নুরুল আকতার গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।

জাসদ নেতা নুরুল আকতার এক বিবৃতিতে বলেন কমরেড আ ফ ম মাহবুবুল হক ছিলেন শোষণমুক্ত সমাজতান্ত্রিক বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার স্বপ্নদ্রষ্টা। বিপ্লবী রাজনীতিতে তার আপোষহীন লড়াই এ দেশের বামপন্থি রাজনীতিকদের অনাদিকাল পথ দেখাবে। সমাজতান্ত্রিক বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার আজন্ম সেনানী এই বীর যোদ্ধার মৃত্যুতে দেশের বাম আন্দোলনের অপূরণীয় ক্ষতি হলো।


আজ শুক্রবার বাংলাদেশ সময় সকাল ১০টা ১৫ মিনিটে কানাডার রাজধানী অটোয়ার সিভিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায়  মারা যান বামপন্থি রাজনীতির পুরোধা ব্যক্তিত্ব, বীর মুক্তিযোদ্ধা, খ্যাতিমান রাজনীতিবিদ, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দলের (বাসদ-মাহবুব) আহ্বায়ক আ ফ ম মাহবুবুল হক।

বাসদের পক্ষ থেকে পার্টির আহ্বায়ক কমরেড আ ফ ম মাহবুবুল হক এর অকাল মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করা হয়েছে।

গত সেপ্টেম্বরে সিঁড়ি থেকে পড়ে গিয়ে মাথায় আঘাত পান মাহবুবুল হক। এরপর থেকে মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণ কারণে হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন তিনি। এর আগে ২০০৪ সালের ২৫ অক্টোবর ঢাকায় অজ্ঞাত ঘাতকদের আঘাতে গুরুতর অবস্থায় দেশে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে কানাডায় উন্নত চিকিৎসা নিচ্ছিলেন।

আপসহীন সাবেক এই ছাত্রনেতা ১৯৪৮ সালের ২৫ ডিসেম্বর নোয়াখালী জেলার চাটখিল উপজেলার মোহাম্মদপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতার নাম ফজলুল হক ও মায়ের নাম মরিয়ামেন নেছা।

এসএসসি ও এইচএসসিতে মেধার তালিকায় স্থান নিয়ে কৃতকার্য হয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগে ভর্তি হন। আ ফ ম মাহবুবুল হক ১৯৬২ সালে স্কুল জীবনে শরীফ কমিশনের প্রতিক্রিয়াশীল শিক্ষানীতি বিরোধী ছাত্র আন্দোলনে অংশ নেন ও পুলিশি নির্যাতনের শিকার হন। তিনি ১৯৬৭-৬৮ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পূর্ব পাকিস্তান ছাত্রলীগ সূর্যসেন হল শাখার সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।


এখানে খুজুন


আরও পড়ুন