আজ শনিবার, ২১ জুলাই ২০১৮ ইং, ০৬ শ্রাবণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ



কাঁচামরিচের গুণাগুন

Published on 22 October 2017 | 10: 33 am

কাঁচামরিচ ছাড়া রান্নার কথা চিন্তাই করা যায় না। এছাড়া সালাদ, ডিম ভাজিসহ কাঁচামরিচের রয়েছে বিভিন্ন ব্যবহার। খাদ্য ও পুষ্টিবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কাঁচামরিচে থাকা রাসায়নিক উপাদানগুলো ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখার পাশাপাশি কাটাছেড়া ও জখমের ক্ষেত্রে রক্তপাত বন্ধে কার্যকরী। আসুন জেনে নিই কাঁচামরিচের আরও বিবিধ উপকারিতা-

১. কাঁচামরিচে রয়েছে ‘ক্যাপসাইসিন’, যা নাকে রক্তপ্রবাহ স্বাভাবিক রাখে ও সর্দি–কাশি, সাইনাসের সমস্যার ক্ষেত্রে উপকারী।
২. কাঁচামরিচ খেলে গরম অনুভূত হয়, যা ব্যথা উপশমে অত্যন্ত কার্যকর।
৩. কাঁচামরিচে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি রয়েছে। তাই কাঁচামরিচ ঠাণ্ডা স্থানে রাখুন। কারণ তাপ, আলো ও বাতাসের সংস্পর্শে ভিটামিন সি নষ্ট হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে।
৪. কাঁচামরিচ থেকে ‘এন্ডোরফিনস’ নামক রাসায়নিক উপাদান নিঃসৃত হয়, যা মন ভালো রাখার জন্য এনজাইম বৃদ্ধি করে।
৫. ডায়বেটিস রোগীদের জন্য কাঁচামরিচ বেশ উপকারী। এটি রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখে।
৬. কাঁচামরিচ আয়রণের অন্যতম প্রাকৃতিক উৎস। যাদের শরীরে আয়রণের অভাব রয়েছে তাদের বেশি বেশি কাঁচামরিচ খাওয়ার ওপর জোর দেওয়া উচিত। কাঁচামরিচ দৃষ্টিশক্তির জন্যও উপকারী।
৭. কাঁচামরিচে প্রচুর ব্যাকটেরিয়া প্রতিরোধী উপাদান থাকে। ত্বকের বিভিন্ন সংক্রমণ রোধেও এসব উপাদান উপকারী।
৮. কাঁচা মরিচে উচ্চমাত্রায় ‘বেটা–ক্যারোটিন’ নামক অ্যান্টি–অক্সিডেন্ট রয়েছে, যা হৃদযন্ত্রের জন্য উপকারী।
৯. কাঁচামরিচে উচ্চমাত্রার ভিটামিন-এ রয়েছে, যা হাড়, দাঁত ও মিউকাস ঝিল্লিকে শক্ত করে। সূত্র: হেলথ.কম।


এখানে খুজুন


আরও পড়ুন