আজ সোমবার, ২৫ জুন ২০১৮ ইং, ১১ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ



সোনালী সন্দ্বীপ ও শাহাদাৎ হোসেন আশরাফ : কিছু কথা

Published on 28 July 2017 | 2: 58 pm

ওমর হায়দার সাহেদ :::::::::::::::::::::::::::::::::::
——————————————–
সন্দ্বীপের চার লক্ষ মানুষের মুখপত্র মাসিক সোনালী সন্দ্বীপ পত্রিকা।১৯৯৯ সাল থেকে নিয়মিত প্রকাশিত সন্দ্বীপের প্রথম রেজিষ্ট্রার্ড পত্রিকা ‘মাসিক সোনালী সন্দ্বীপ’।
সন্দ্বীপে অনেক খ্যাতিম্যান সাংবাদিকের জন্ম, অনেকেই সন্দ্বীপ থেকে বের হয়ে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক পত্রিকাতে ও টিভির চ্যানেলে কাজ করে যাচ্ছেন। মাসিক সোনালী সন্দ্বীপ পত্রিকার ও সোনালী নিউজ টুয়েন্টি ফোর ডট কম এর সম্পাদক ও প্রকাশক সাংবাদিক শাহাদাৎ হোসেন আশরাফ সোনালী সন্দ্বীপ ছেড়ে কোথাও যাননি। আমরা উনাকে নিয়ে গর্ববোধ করতেই পারি। যার আবেগ সবসময় সন্দ্বীপকে নিয়ে কাজ করে। উনার চেয়ে অনেক বড় বড় সাংবাদিক সন্দ্বীপ জন্ম গ্রহন করেছেন। দেখেছি তারা সন্দ্বীপ নিয়ে কি করেছে? উনার সন্দ্বীপের প্রতি এত প্রেম-ভালোবাস আমাদের মুগ্ধ করেছে।
তিনি গ্রামকে গ্রাম খুজে বেড়িয়েছেন মানুষের সমস্যাগুলো, নিরলস শ্রম দিয়ে যাচ্ছেন সন্দ্বীপের সমস্যা,সম্ভবনা গণমাধ্যমে তুলে ধরার জন্য।সাংবাদিকদের বলা হয় জাতির বিবেক, একজন জাতির বিবেক হিসেবে উনার দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করে যাচ্ছেন। কোন সমস্যার কথা গণমাধ্যমে না আসলে তা সমাধান কখনও দ্রুত হয় না। তিনি এতো কিছু করে যাচ্ছেন শুধু সন্দ্বীপবাসীর টানে। শাহাদাৎ আশরাফ ভাই’র মতো সন্দ্বীপকে নিয়ে এত বেশী খবর কেউ প্রচার করেনা। তিনি সন্দ্বীপের হাসি-কান্না, দুখ-কষ্ট, সকল সমস্যা দেশবাসীকে প্রতিনিয়ত জানাচ্ছেন।
সন্দ্বীপবাসীর আস্তার প্রতীক মাসিক সোনালী সন্দ্বীপ পত্রিকা ও সোনালী নিউজ। দেড় যুগে মাসিক সোনালী সন্দ্বীপ ও দ্বিতীয় বর্ষে পদার্পণ করলো সন্দ্বীপের সবচেয়ে সক্রিয় জনপ্রিয় নিউজ পোর্টাল সোনালী নিউজ টুয়েন্টি ফোর ডট কম। সন্দ্বীপের পাশাপাশি এরই মধ্যে দেশ বিদেশও বাংলাদেশীদের কাছে একটি বিশ্বস্ত ও আস্থার প্রতীক হয়ে উঠেছে সোনালী সন্দ্বীপ সোনালী নিউজ।
সন্দ্বীপসহ দেশবাসীর মুখে মুখে সোনালী সন্দ্বীপ সোনালী নিউজ।তারা দ্রুত ও নির্ভুল সংবাদ পেতে সোনালী সন্দ্বীপের ওয়েব পেইজেই ঢুঁ মারেন বারবার। ক্ষুদ্র বিষয়কেও গুরুত্বের সঙ্গে সংবাদ প্রকাশ করে একটি দায়িত্বশীল প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়েছে সোনালী মিডিয়া এন্ড পাবলিকেশন্স।সন্দ্বীপসীদের কথা চিন্তা করে সাজানো হয়েছে বিভিন্ন বিভাগ। যেখানে সন্দ্বীপসহ দেশবিদেশে বাংলাদেশী অধ্যূষিত প্রাধান্য দেওয়া হয়েছে।
সোনালী সন্দ্বীপ ও সোনালী নিউজ এরই মধ্যে সবার কাছে বেশ গ্রহণযোগ্যতা অর্জন করেছে।সন্দ্বীপসহ প্রবাসে বাংলাদেশ দূতাবাস থেকে শুরু করে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনসহ অগণিত বাংলাদেশীর মন-প্রাণ জুড়ে স্থান করে নিয়েছে সোনালী সন্দ্বীপ সোনালী নিউজ।প্রতি মূর্হতের খবারা-খবরের জন্য খোলা হয়ে সোনালী নিউজ নামে ওয়েবপেইজ www.sonalinews24.com
প্রতিদিনই সেখানে দেশবিদেশের সংবাদ প্রকাশ করা হয়। আর তা সঙ্গে সঙ্গেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের বিভিন্ন সাইটে শেয়ার করেন সন্দ্বীপবাসীরা। অনেক নিউজ নিয়ে বেশ আলোচনা-সমালোচনাও হয়, হয় আলোচিতও।
বর্তমানে সন্দ্বীপে বসবাস প্রায় পাঁচ লক্ষ মানুষে। ছাত্র,শিক্ষক,চিকিৎসক সহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার এসব মানুষকে মুহ‍ূর্তে তরতাজা খবর দিয়ে আপডেটে রাখছে সোনালী নিউজ।সন্দ্বীপসহ প্রবাসে বাংলাদেশিদের সোনালী সন্দ্বীপ সোনালী নিউজ এখন মধ্যমণি!বিভিন্ন কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সহ অনেকেই নতুন প্রজন্মের এই পত্রিকাটির একনিষ্ঠ পাঠক। আর একটি কথা না বললেই নয়, সন্দ্বীপের অনেক পত্রিকা ও অনলাইন নিউজ পোর্টাল সোনালী সন্দ্বীপ ও সোনালী নিউজের সংবাদ ‘কপি অ্যান্ড পেস্ট’ করে ছাপিয়ে দেয়।
অনেকে কার্টেসি দেয় কেউ আবার দেয় না। তবে পাঠকই দেখে বলে দেন যে, সংবাদটি আগেই সোনালী সন্দ্বীপ সোনালী নিউজে প্রকাশিত হয়েছিল।
সন্দ্বীপের বিভিন্ন অনিয়ম-দুর্নীতির বিরুদ্ধে যা প্রথমে সোনালী সন্দ্বীপ সোনালী নিউজেই প্রকাশিত হয়।এ ধরনের আলোচিত আরও অনেক ঘটনাই ব্রেকিং করেছে এই পোর্টাল । এমনকি সন্দ্বীপ শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন দুর্দশার কথাও তুলে ধরেছে। যার মাধ্যমে আগ্রহী অনেক শিক্ষার্থী সচেতন হয়েছেন। নানা ধরনের লোভনীয় অফারের ফাঁদে পা ফেলছেন না তারা। নিজেকে সময়ের সঙ্গে হালনাগাদ করতে সন্দ্বীপ প্রবাসীরা ঘুম থেকে উঠেই দেশ-বিদেশের খবরা-খবর জানতে চোখ বুলান সোনালী নিউজে।এভাবেই সবার প্রিয় ও সঙ্গী হয়ে উঠেছে এ পত্রিকাটি।
সন্দ্বীপের গণ্ডি পেরিয়ে প্রবাসী বাংলাদেশিদের কাছে সোনালী সন্দ্বীপের ওয়েবপেইজ এখন আস্থার নাম। দেশের খবর জানতে সোনালী সন্দ্বীপ তাদের বড় ভরসা। ধীর হয়ে আসছে দৈনিক পত্রিকার দৌড়। সপ্তাহে একদিনের বাংলা পত্রিকার জন্যে এখন আর অপেক্ষা করার মানে হয় না। হাতের স্মার্ট ফোনেই এখন দেশের প্রতি মুহুর্তের খোঁজ রাখছেন সবাই। রাখছেন ভিন দেশে অবস্থানকারী বাংলাদেশিদেরও খবর। আর এক্ষেত্রে প্রবাসী পাঠকের কাছে খবর পৌছে দিতে সবসময়ই সচেষ্ট সোনালী নিউজ।
এ কারণে পৃথিবীর যে কোনো প্রান্তে প্রবাসীদের কাছে এখন সবচেয়ে আস্থার নাম সোনালী নিউজ। সন্দ্বীপসহ প্রবাসী বাংলাদেশিদের কাছেও সবচেয়ে বেশি পঠিত জনপ্রিয় অনলাইন নিউজপোর্টাল সোনালী নিউজ টোয়েন্টি ফোর ডট কম। দেশের এবং বাইরের প্রতিঘন্টার সর্বশেষ খবর জানতে বিভিন্ন দেশ থেকে প্রতিদিন প্রায় অনেক বাংলাদেশি প্রবাসী প্রবেশ করেন সোনালী নিউজে।
পাঠকের চাহিদাকে বিবেচনায় রেখে সোনালী নিউজ ওয়েবপেইজ চালু হয়। যা পাঠকের প্রতি তার শ্রদ্ধার প্রকাশও বটে। দেশের প্রতিটি ছোটখাট ঘটনাও জানেন প্রতি মুহূর্তে। দেশের খবর রাখার মাধ্যমে পরিবারের খবরও রাখেন। নিজ এলাকার প্রতি মুহুর্তের খবরও পান প্রবাসীরা।
দেশের নিজ জেলার এমনকি নিজ উপজেলার প্রতিমুহূর্তের খবর সবার আগে পাওয়া যাচ্ছে সোনালী সন্দ্বীপ ওয়েবপেইজে।
শাহাদাৎ হোসেন আশরাফ তার দীর্ঘ সাংবাদিকতার অভিজ্ঞতায় পাঠকদের মুগ্ধ করেছে।সন্দ্বীপ প্রবাসী বাংলাদেশির কাছে বেশি জনপ্রিয়-ভালবাসার সোনালী সন্দ্বীপ।সোনালী সন্দ্বীপে প্রতিদিন অসংখ্য ফোন এবং মেইল আসে বিভিন্ন অঞ্চল থেকে। নিজেদের আয়োজনগুলো যেমন তারা জানাতে চান,তেমনি নিজেদের সুখ-দুঃখের কথা জানান সোনালী সন্দ্বীপকে। জানান পাওয়া না পাওয়ার কথা।
বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতা ও পেশাগত দক্ষতার কারণে পত্রিকাটি সন্দ্বীপে গণমাধ্যমে প্রাতিষ্ঠানিকরূপ লাভ করেছে।সন্দ্বীপে সবচেয়ে মর্যাদাসম্পন্ন কাগজ হিসেবে প্রতিষ্ঠা পেয়েছে।দেড় যুগের বেশী সময় ধরে প্রকাশিত সোনালী সন্দ্বীপ সবচেয়ে পাঠকপ্রিয় প্রভাবশালী বাংলা মাসিক পত্রিকা।
বস্তুনিষ্টতা বজায় রেখে এগিয়ে যাবে সোনালী সন্দ্বীপ,অবহেলিত জনপদের কথা বলছে,সোনালী সন্দ্বীপ ভালোবেসেই পাশে রইবো এগিয়ে যাও, সাংবাদিকতা শেখা ও করার মুগ্ধতা সোনালী সন্দ্বীপ,সোনালী সন্দ্বীপের সংবাদ অপরাধ দমনে সহায়ক হয়,সোনালী সন্দ্বীপে আমার দুই বছরের পথ চলা ,শহর-গাঁয়ে সমান জনপ্রিয় সোনালী সন্দ্বীপ,আমরা মানুষের মানুষ আমাদের ,ডিজিটাল দেশের ডিজিটাল নিউজ পোর্টাল সোনালী নিউজ, সমস্যা হয়নি তো,সাবধান থেকো!!
পরিশেষে সোনালী সন্দ্বীপের সফলতা কামনা করছি,দীর্ঘজীবী হউক সোনালী সন্দ্বীপ।
সম্পাদক ও প্রকাশক সাংবাদিক শাহাদাৎ হোসেন আশরাফ আপনার প্রতি সবসময় দোয়া ও শুভকামনা।আপনার উজ্জ্বল ভবিষৎ কামনা করছি।

লেখক: ওমর হায়দার সাহেদ, সংবাদদাতা- মাসিক সোনালী সন্দ্বীপ ও সোনালী নিউজ টুয়েন্টি ফোর ডট কম।

 


এখানে খুজুন


আরও পড়ুন