আজ রবিবার, ২৪ জুন ২০১৮ ইং, ১০ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ



বঙ্গবন্ধুর জীবনের প্রতিটি মুহূর্তই ইতিহাস

Published on 17 March 2017 | 12: 12 pm

-বঙ্গবন্ধুর জন্মজয়ন্তীতে চেতনার সৈকতে ভোরের নোঙর বঙ্গবন্ধু শীর্ষক আলোচনা সভায় বেগম মুশতারি শফী ::

শহীদ জায়া ও লেখিকা বেগম মুশতারি শফি বলেছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবনের প্রতিটি মুহূর্তই ইতিহাস। তাঁর প্রতিটি ঘটনা ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য শিক্ষণীয়। বাঙালি জাতিসত্তার বিকাশে তাঁর ব্যক্তি জীবন, রাজনৈতিক উত্থান-পতন, সংগ্রাম, জেল, নির্যাতন, রাষ্ট্র পরিচালনা- সব নিয়ে আরোও গবেষণা হবে হবে। বঙ্গবন্ধু শুধু আওয়ামী লীগের নয়, ১৬ কোটি বাঙালির সম্পদ। হাজার বছর পর হয়তো আওয়ামী লীগ থাকবে না, কিন্তু বাঙালি জাতি থাকবে। আর এ জাতির জনক হিসেবে বঙ্গবন্ধু টিকে থাকবেন।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৮ তম জন্মজয়ন্তী ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে ১৭ মার্চ শুক্রবার সকালে এনায়েত বাজার মহিলা বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট চট্টগ্রাম জেলা আয়োজিত শিশু কিশোর, সাংস্কৃতিক উৎসব ও শিশু সমাবেশ “চেতনার সৈকতে ভোরের নোঙর বঙ্গবন্ধু” শীর্ষক আলোচনা সভার অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষণে তিনি একথা বলেন।

শিশু কিশোর সাংষ্কৃতিক উৎসবের উদ্বোধকের ভাষণে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী বলেন- বঙ্গবন্ধু শুধু বাংলাদেশের নয়, সারা বিশ্বের সম্পদ। তিনি হিমালয়ের চেয়েও উঁচু ব্যক্তিত্বের অধিকারী। শুধু রাজনীতির কারণেই বঙ্গবন্ধুর বিরোধিতা করা হয়। যারা এই মহান ব্যক্তিকে ছোট করার চেষ্টা করেছেন, তারা নিজেরাই আস্থাকুঁড়ে হারিয়ে গেছেন। ইন্দোনেশিয়ার সুর্কণ, ভারতের মহাত্মা গান্ধী, চীনের মাও সে তুংয়ের উল্লেখ করে মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী বলেন, পৃথিবীর কোনো দেশেই জাতির পিতাদের অসম্মানিত করা হয় না। কিন্তু বাঙালি এতই দুর্ভাগা যে, বঙ্গবন্ধুর শুধু সমালোচনা নয়, তার মৃত্যুর দিনও ভুয়া জন্মদিন পালন করা হয়।

বিশেষ অতিথির ভাষণে বীর মুক্তিযোদ্ধা নগর আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি নঈম উদ্দিন চৌধুরী বলেন, শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বের কারণেই স্বাধীনতা বিরোধীদের আজ বিচার করা সম্ভব হয়েছে। এ অর্জন ধরে রাখতে হলে আগামী নির্বাচনেও আওয়ামী লীগকে জয়ী করতে হবে। বিএনপি-জামায়াত যদি আবার ক্ষমতায় আসে তবে দেশে রক্তাক্ত সংঘাত দেখা দিবে।

নগর আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামন্ডলীর সদস্য আলহাজ্ব শফর আলী বলেন, বঙ্গবন্ধুর জীবনের পুরোটাই ইতিহাস। এ নিয়ে আরও গবেষণা হতে হবে। বঙ্গবন্ধুকে নতুন প্রজন্মের সামনে তুলে ধরতে হলে তার জীবনের প্রতিটি দিক নিয়ে আলোচনা করতে হবে।

বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট চট্টগ্রাম জেলার সহ সভাপতি প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম মানিকের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক সংস্কৃতিকর্মী খোরশেদ আলমের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন সমাজসেবক হাজী মোহাম্মদ সাহাব উদ্দিন, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা মীর আবদুর রহমান মামুন, নগর যুবলীগের সদস্য সুমন দেবনাথ, লিটন রায় চৌধুরী, চট্টগ্রাম আইন কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আশরাফুল আলম আরজু, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সহ সম্পাদক ইয়াছির আরাফাত, আইন কলেজের সাবেক ভি.পি এডভোকেট টিপুশীল জয়দেব, রেবা বড়–য়া, নগর ছাত্রলীগের সদস্য বোরহান উদ্দিন গিফারী, সংস্কৃতিকর্মী ও সঙ্গীতশিল্পী কাজল দত্ত, প্রণব দাশ গুপ্ত, রিংকু ভট্টাচার্য্য, নৃত্যশিল্পী অপরাজিতা চক্রবর্ত্তী (টুপটুপ), সূচনা বণিক, শ্রাবণী দে, দেবু বড়–য়া প্রমুখ।

বঙ্গবন্ধুকে নিবেদিত করে চিত্রাংকন, সাধারণ নৃত্য, লোকনৃত্য, বঙ্গবন্ধুর গান, দেশের গান, প্রতিযোগিতায় চট্টগ্রামের বিভিন্ন স্কুল, কলেজ ও সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠানের প্রায় ৫ শতাধিক শিশু কিশোর সাংস্কৃতিক প্রতিযোগীতায় অংশগ্রহণ করেন। সাংস্কৃতিক প্রতিযোগীতায় অংশগ্রহণকারী সকল শিশুদের নিয়ে বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনের বেলুন, পায়রা উড়ানো হয়।


এখানে খুজুন


আরও পড়ুন