আজ বৃহঃপতিবার, ২১ জুন ২০১৮ ইং, ০৭ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ



স্বপ্ন নিয়ে ক্রাইস্টচার্চে

Published on 24 December 2016 | 5: 18 am

রুয়াকাকা সৈকতে সদলবলে আনন্দ-উল্লাস, হোটেলে নিজেদের মতো করে সময় কাটানো আর ওয়ানডে সিরিজের আগে প্রস্তুতি ম্যাচ_ সব মিলিয়ে শত সৈকতের শহর হিসেবে পরিচিত নিউজিল্যান্ডের সর্ব উত্তরের শহর ওয়াংগেরিতে কয়েকটা দিন বেশ ভালোই কাটিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। যদিও একমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচে জয় ধরা দেয়নি, তবু এই প্রস্তুতি ম্যাচ থেকে ইতিবাচক অনেক কিছুই পেয়েছে টাইগাররা। দীর্ঘদিন পর মাঠে ফিরে প্রথম ওভারেই উইকেট পেয়েছেন পেসার মুস্তাফিজুর রহমান, সাত ওভার বল করে নিয়েছেন দুই উইকেট। রানে ফেরার ইঙ্গিত দিয়েছে সৌম্য সরকারের ব্যাট, আর দলও ভিন্ন কন্ডিশনে মানিয়ে নেওয়ার প্রাথমিক চ্যালেঞ্জটা বেশ ভালোভাবেই উতরে গেছে। এসব ইতিবাচকতাকে সঙ্গী করেই গতকাল ক্রাইস্টচার্চে পা রাখল বাংলাদেশ দল, যেখানে অনুষ্ঠিত হবে ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচ। স্থানীয় সময় শুক্রবার দুপুরে মাশরাফিদের বহনকারী এনজেড-৫২৭ বিমানটি যখন ক্রাইস্টচার্চে এসে পেঁৗছায়, তখন শহরের আকাশে বেশ ভালোভাবেই জেঁকে বসেছে মেঘেরা, থেকে থেকে চলছে বৃষ্টিও। ২টা ২৫ মিনিটে পেঁৗছানোর কথা থাকলেও নির্ধারিত সময়ের খানিকটা দেরিতে ক্রাইস্টচার্চে নামে বিমানটি। বিমানবন্দরের সব ধরনের আনুষ্ঠানিকতা শেষে ক্রিকেটাররা বের হলে তাদের অভ্যর্থনা জানান ক্রাইস্টচার্চের বসবাসরত একদল বাংলাদেশি। ফুল দিয়ে বরণ করে নেন নিজ দেশের এই তারকাদের। ভিন দেশে নিজের দেশের মানুষদের পেয়ে ক্রিকেটাররাও যেন খুব খুশি। প্রায় সবার সঙ্গেই তারা ছবি তুলেছেন, করেছেন কুশল বিনিময়। ভক্তদের সবার আবদার মেটানোর পর এরপর টিম বাসে দল সোজা চলে যায় হোটেলে। অনুশীলনে আর যাওয়া হয়ে ওঠেনি এদিন, তাই হোটেলেই দীর্ঘক্ষণ টিম মিটিং করেন দলের সবাই।

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে মাঠে নামার আগে আজ হ্যাগলে ওভালে অনুশীলন করবে টাইগাররা। আগামী ২৬ ডিসেম্বর এই মাঠেই অনুষ্ঠিত হবে প্রথম ওয়ানডে। ক্রাইস্টচার্চের এই মাঠটিতে এর আগে কখনোই খেলেনি বাংলাদেশ দল। ২০১০ সালে তিন ম্যাচ সিরিজের শেষ ওয়ানডেটি ক্রাইস্টচার্চে হয়েছিল ঠিকই, কিন্তু সেটি অনুষ্ঠিত হয়েছিল শহরের আরেক মাঠ ল্যাঙ্কাস্টার পার্কে। হ্যাগলে ওভাল তাই বাংলাদেশি ক্রিকেটারদের জন্য নতুন এক পরীক্ষা ক্ষেত্রের নাম।

উল্লেখ্য, নিউজিল্যান্ড সফরের প্রস্তুতি হিসেবে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে ৯ দিনের প্রস্তুতি ক্যাম্প করে এসেছে টাইগাররা। সেখানে সিডনি থান্ডার্স এবং সিডনি সিক্সার্স দলের সঙ্গে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচে অংশ নেয় তারা। সিক্সার্সদের বিপক্ষে ৭ উইকেটের সহজ জয় পেলেও দ্বিতীয় ম্যাচে থান্ডার্সের বিপক্ষে পরাজিত হয় ছয় উইকেটে। নিউজিল্যান্ড সফরে তিনটি ওয়ানডের পাশাপাশি তিনটি টি২০ এবং দুটি টেস্ট ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। ২৬ তারিখ প্রথম ওয়ানডের পর ২৯ এবং ৩১ তারিখ হবে বাকি দুটি ওয়ানডে। দুটি ম্যাচই অনুষ্ঠিত হবে নেলসনে। টি২০ সিরিজের প্রথম ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে নেপিয়ারে, জানুয়ারির ৩ তারিখ। ৬ ও ৮ জানুয়ারি বাকি দুটি ম্যাচ হবে মাউন্ট মউঙ্গানুইতে। ওয়েলিংটনে ১২ থেকে ১৬ তারিখ পর্যন্ত অনুষ্ঠিতব্য প্রথম টেস্টের পর বাংলাদেশ দল আবারও ফিরে আসবে ক্রাইস্টচার্চে। সেখানে ২০ তারিখ থেকে শুরু হবে দ্বিতীয় এবং শেষ টেস্ট। এবারের সফরের আগে নিউজিল্যান্ডে খেলা পাঁচ টেস্ট, সাত ওয়ানডে এবং একটি টি২০ ম্যাচের একটিতেও জয় পায়নি বাংলাদেশ। ঘরের মাঠে গত বছর দেড়েকের অসাধারণ পারফরম্যান্স নিশ্চিতভাবেই এবারের সফরে কিউইদের মাটিতে প্রথম জয় পেতে অনুপ্রেরণা জোগাবে বাংলাদেশ দলকে।


এখানে খুজুন


আরও পড়ুন