আজ শনিবার, ২৩ জুন ২০১৮ ইং, ০৯ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ



রাস্তায় টেনে খোলা হল তরুণীর হিজাব

Published on 18 December 2016 | 8: 15 am

এক মুসলিম তরুণী একা রাস্তা দিয়ে হাঁটছিলেন। হঠাৎ দু’জন এসে তাকে টেনে-হিঁচড়ে কিছুটা দূরে নিয়ে যায়। সেখানে তাকে ধাক্কা মেরে মাটিতে ফেলে দেয়া হয়। এরপর তারা ওই তরুণীর হিজাব টেনে খুলে নেয়।

পূর্ব লন্ডনের চিংফোর্ডের ব্যস্ত একটি শপিং মলের সামনে স্থানীয় সময় বুধবার রাত ৮টা ৩৫ মিনিটের দিকে এ ঘটনা ঘটে। খবর দ্য গার্ডিয়ানের। শনিবার মেট্রোপলিটন পুলিশ জানিয়েছে, ধর্মীয় বিদ্বেষবশত দুই কিশোর এ ঘটনা ঘটিয়েছে।

১৭ থেকে ১৯ বছর বয়সী দুই কিশোর শ্বেতাঙ্গ এবং তাদের পরনে ছিল কালো পোশাক। ২০ বছর বয়সী ব্রিটিশ তরুণী চিংফোর্ডের রাস্তায় একা হাঁটার সময় ওই দুই কিশোরের হামলার মুখে পড়েন।

ঘটনা তদন্ত করছে পুলিশ। তবে এখন পর্যন্ত হামলাকারী ওই দুই কিশোরকে আটক করতে পারেনি। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, হামলার পর প্রায় ২০ মিনিট ওই তরুণী আহতবস্থায় মাটিতে পড়েছিলেন। পরে ওই সড়কের রেস্টুরেন্টকর্মী কোকসাল জায়েক পুলিশকে খবর দেন।

ঘটনার বর্ণনা দিয়ে জায়েক বলেন, ‘হামলার পর আমার সহকর্মী ঘটনাস্থলে যান। ওই তরুণীর সঙ্গে কথা বলেন। তরুণী তাকে জানান, হিজাব পরার কারণে তার ওপর দুই কিশোর হামলা করেছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘হামলায় গুরুতর জখম হওয়ায় তার হাঁটতে অসুবিধা হচ্ছিল। আমি তার হাত ধরে হাটতে সাহায্য করি এবং পুলিশ ও অ্যাম্বুলেন্সে খবর দেই।’

স্কটল্যান্ড ইয়ার্ডের পুলিশ বলছে, চিংফোর্ডে একটি অতি ব্যস্ত শপিং মলের সামনে দিয়ে ফুটপাত ধরে হাঁটছিলেন হিজাব পরা ২০ বছর বয়সী ওই মুসলিম।

তখনই তার ওপর চড়াও হয় দুই কিশোর। তারা ওই তরুণীর হিজাব দেখে প্রথমে অশালীন মন্তব্য করে। তারপর তাকে টেনেহিঁচড়ে কিছুটা দূরে নিয়ে গিয়ে হিজাবটি টেনে খুলে দেয়।

পরে লন্ডনের অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস গিয়ে ফুটপাতে পড়ে থাকা ওই মুসলিম তরুণীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। লন্ডনের অপরাধ বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ‘ব্রেক্সিটের’ পর ইউরোপীয় ইউনিয়ন রেফারেন্ডাম দিয়েছে। তারপর গত দু’সপ্তাহে লন্ডনে এমন ঘটনার হার বেড়ে গিয়েছে প্রায় ৫৮ শতাংশ।


এখানে খুজুন


আরও পড়ুন