আজ বৃহঃপতিবার, ২১ জুন ২০১৮ ইং, ০৭ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ



রাগীব আলী গংদের বিরুদ্ধে পুনরায় সাক্ষ্যগ্রহণ

Published on 04 December 2016 | 8: 29 am

সিলেটে তারাপুর চা বাগানের দেবোত্তর সম্পত্তি আত্মসাৎ ও জালিয়াতির মামলায় শিল্পপতি রাগীব আলী গংদের বিরুদ্ধে পুনরায় সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়েছে।

রোববার দুপুরে সিলেট মূখ্য মহানগর হাকিম সাইফুজ্জামান হিরোর আদালতে ছয় সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়।

জেলা জজ কোর্টের এপিপি শামসুল ইসলাম জানান, আসামিদের আবেদনের প্রেক্ষিতে রোববার আদালতে ছয় সাক্ষী পুনরায় সাক্ষ্য দিয়েছেন। মামলায় মোট ১৪ জন সাক্ষী রয়েছেন।

জাল কাগজপত্রের মাধ্যমে সিলেটের তারাপুর চা বাগানের দেবোত্তর সম্পত্তিতে অবৈধ স্থাপনা নির্মাণের মাধ্যমে হাজার কোটি টাকার ভূমি আত্মসাৎ ও জালিয়াতির দুটি মামলায় রাগীব আলী, তার ছেলে আবদুল হাই, মেয়ে রুজিনা কাদির, জামাতা আবদুল কাদির, আত্মীয় দেওয়ান মোস্তাক মজিদ এবং তারাপুর চা বাগানের সেবায়েত পংকজ কুমার গুপ্তকে আসামি করা হয়েছে। মামলায় রাগীব আলী ও তার ছেলে-মেয়েসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে গত ১০ আগস্ট গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন আদালত।

গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির পর ছেলেকে নিয়ে ভারতে পালিয়ে যান রাগীব আলী। তার আত্মীয় দেওয়ান মোস্তাক মজিদ গত ১০ অক্টোবর আদালতে আত্মসমর্পণ করার পর তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।

গত ১২ নভেম্বর রাগীব আলীর ছেলে আবদুল হাইকে জকিগঞ্জ সীমান্ত থেকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। ওইদিন তাকে আদালতে হাজির করা হলে আদালত কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন। গত ২৪ নভেম্বর ভারতের করিমগঞ্জ থেকে রাগীব আলীকে আটক  করে সে দেশের পুলিশ। ওইদিন বিকেলেই তাকে বাংলাদেশ পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়। মামলা দুটিতে গ্রেপ্তার দেখিয়ে পুলিশ রাগীব আলীকে আদালতে হাজির করার পর তাকে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন বিচারক। মামলার আরেক আসামি পংকজ কুমার গুপ্ত জামিনে রয়েছেন।

 

 


এখানে খুজুন


আরও পড়ুন