আজ বুধবার, ২০ জুন ২০১৮ ইং, ০৬ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ



‘প্রেমের মানুষ’ নিয়ে যা বললেন কবির বকুল

Published on 03 December 2016 | 3: 40 am

সংগীত পরিচালক ও গীতিকার কবির বকুল বলেছেন, ‘প্রেমের মানুষ ঘুমাইলে ছাইয়া থাকে…’ গানটি নিয়ে ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে। এই গানটি যে সুনামগঞ্জের গীতিকার মো. জবান আলীর লেখা একটি জনপ্রিয় গান সেটি আমি নিজেও জানি।’

তবে তিনি বলেছেন, ‘এই গান ছবিতে কীভাবে ব্যবহার হয়েছে সেটি আমি জানি না, ছবির পরিচালক ও প্রযোজক জানেন।’

শুক্রবার সন্ধ্যায় তাহিরপুর পৌর শহরের প্রয়াত আইনজীবী ও গীতিকার মো. জহির আহমদ সোনা মিয়ার বাসায় গীতিকার মো. জবান আলী ও অন্যদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন।

গীতিকার জবান আলীর এই গানটি চলচ্চিত্র পরিচালক পি এ কাজল তার ‘পিরিতের আগুন জ্বলে দ্বিগুণ’ ছবিতে ব্যবহার করেছেন। অথচ গানের যে সিডি প্রকাশিত হয়েছে, সেখানে তার নাম নেই।

এ নিয়ে সুনামগঞ্জের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে গত ১৩ এপ্রিল পি এ কাজল ও কবির বকুলের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন গীতিকার মো. জবান আলী।

এই মামলায় দুই বিবাদীর বিরুদ্ধে বৃহস্পতিবার গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন আদালত।

শুক্রবার কবির বকুল সুনামগঞ্জে এসে মো. জবান আলীর সঙ্গে দেখা করে বিষয়টি নিয়ে তার অবস্থান পরিষ্কার করেন।

তিনি বলেন, ‘ওই ছবিতে আমার কয়েকটি গান আছে। কিন্তু সবকটি গানের গীতিকার হিসেবে প্রকাশিত সিডির কাভারে এককভাবে আমার নাম লেখার বিষয়টি আমি জানি না।’

বিষয়টি নিয়ে জবান আলীর কাছে দুঃখ প্রকাশ করে কবির বকুল বলেন, ‘আপনার কষ্ট আমি বুঝি। এতে আমিও কষ্ট পেয়েছি, এটা হতে পারে না। এই জনপ্রিয় গান আপনার সৃষ্টি। আমি কখনও কোথাও বলিনি যে, এটা আমার লেখা। এই ভুল পরিচালক-প্রয়োজকের। অথচ আজ অন্যের ভুলের মাশুল আমাকে দিতে হচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘আমি আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। অবশ্যই আদালতে আসব এবং আমার অবস্থান পরিষ্কার করব।’

কবির বকুলকে মো. জবান আলী বলেন, ‘আপনি দেশের একজন গুণী মানুষ। এতদূর থেকে এসেছেন, নিজের অবস্থান ব্যাখ্যা করেছেন। এতে আমরা খুশি।’

এ সময় মুঠোফোনে মো. জবান আলীর সঙ্গে সংগীতশিল্পী কুমার বিশ্বজিৎ কথা বলেন।

মামলার বাদীপক্ষের আইনজীবী মো. কামাল হোসেন শুক্রবার রাতে যুগান্তরকে বলেন, ‘গীতিকার কবির বকুল সুনামগঞ্জে এসেছিলেন। তিনি গীতিকার মো. জবান আলী ও আমাদের সঙ্গে এ নিয়ে কথা বলেছেন।’


এখানে খুজুন


আরও পড়ুন