আজ শুক্রবার, ২২ জুন ২০১৮ ইং, ০৮ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ



অর্পিত সম্পত্তি নিয়ে সরকারের তালিকা বৈধ : হাইকোর্ট

Published on 02 December 2016 | 3: 46 am

২০০১ সালের অর্পিত সম্পত্তি প্রত্যার্পণ আইন অনুযায়ী ‘ক’ তফসিলভুক্ত ১৯৭৪ সালের ২৩ মার্চের পর ঘোষিত অর্পিত সম্পত্তির তালিকার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে দায়ের করা রিট সরাসরি খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট।

এই রায়ের ফলে সরকার কর্তৃক প্রণীত তালিকা বৈধ বলে জানিয়েছেন আইনজীবীরা। বৃহস্পতিবার বিচারপতি তারিক-উল হাকিম ও বিচারপতি এম ফারুকের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রায় দেন।

রায় ঘোষণার সময় আদালতে রিট আবেদনকারী অ্যাডভোকেট খলিলুর রহমান এবং রাষ্ট্রপক্ষে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আমাতুল করিম ও সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল এআরএম হাসানুজ্জামান উজ্জ্বল উপস্থিত ছিলেন।

পরে সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল এআরএম হাসানুজ্জামান রাইজিংবিডিকে বলেন, আদালত রায়ে বলেছেন আবেদনকারীদের আবেদনের অধিকার (লোকাস স্টান্ডি) নেই।

তিনি বলেন, আদালত বলেছেন, সংক্ষুব্ধ কোনো ব্যক্তি তার সম্পত্তির জন্য সংশ্লিষ্ট ট্রাইব্যুনালে যেতে পারবেন। এর আগে ১৯৭৪ সালের ২৩ মার্চের পর যে সম্পত্তিগুলো ২০০১ সালের আইনের অধীনে ‘ক’ তফসিলভুক্ত হয়েছে, সেই তালিকা বাতিলের আবেদন জানিয়ে হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হয়।

রিট আবেদন দায়ের করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট খলিলুর রহমান। রিট আবেদনে বলা হয়, ১৯৭৪ সালের ২৩ মার্চের পর রুজুকৃত ভিপি বা ইপি কেইস অর্পিত সম্পত্তির ‘ক’ তফসিলভুক্ত তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করা ঠিক হয়নি। এটা শুরু থেকেই বেআইনি ও ক্ষমতাবহির্ভূত। এই বেআইনি তালিকা বাতিল করা ছাড়া অন্য কোনো পথ খোলা নেই। এটি বাতিল করা না হলে সংশ্লিষ্ট জনগণ হয়রানির হাত থেকে রক্ষা পাবে না।

এআরএম হাসানুজ্জামান বলেন, এই রিট আবেদনের ওপর ৫/৬ কার্যদিবস শুনানি হয়। শুনানি শেষে আদালত আজ উপরোক্ত রায় দেন। প্রসঙ্গত, সরকার দুটি ‘ক্যাটাগরিতে’ অর্পিত সম্পত্তির তালিকা করেছে, যার মধ্যে ‘ক’ তালিকাভুক্ত সম্পত্তি সরকারের দখলে রয়েছে বা ইজারা দেওয়া হয়েছে। আর ‘খ’ তালিকার সম্পত্তি সরকারের দখলে বা ইজারায় নেই।

 


এখানে খুজুন


আরও পড়ুন