আজ সোমবার, ১৮ জুন ২০১৮ ইং, ০৪ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ



যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে দুই দফায় মাঝ আকাশ থেকে ফেরত এসেছে বিমান

Published on 29 November 2016 | 8: 31 am

ফাইল ছবি
যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে বাংলাদেশ বিমানের ঢাকা কলকাতার একটি ফ্লাইট দুই দফায় মাঝ আকাশ থেকে ফেরত এসেছে।

সোমবার এই ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় শাহজালাল বিমান বন্দরে বিমানের পাইলট ও ক্রুদের সঙ্গে যাত্রীদের বাকবিতাণ্ডা ও কথা কাটাকাটি হয়। পরে বিমান কতৃপক্ষ অপর একটি বিশেষ ফ্লাইটে যাত্রীদের কলকাতা পাঠান।

জানা গেছে, সোমবার সকাল সাড়ে ৮টায় বিমানের ছোট উড়োজাহাজ ড্যাস-৮ এর একটি ফ্লাইট কলকাতার উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। ওই ফ্লাইটে ৫৫ জন যাত্রী ছিলেন। ফ্লাইটটি ঢাকা ছেড়ে মানিকগঞ্জ পর্যন্ত যাওয়ার পর ইঞ্জিনে ত্রুটি ধরা পড়ে। এরপর পাইলট গন্তব্য পরিবর্তন করে পুনরায় ফ্লাইটটি নিয়ে শাহজালালে ফিরে আসেন।

বিমানের ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ দীর্ঘ সাড়ে ৩ ঘন্টা মেরামত করে এয়ারক্রাফটি সচল করে। এরপর সকাল সাড়ে ১১টায় দ্বিতীয় দফায় ফ্লাইটটি কলকাতার উদ্দেশ্যে ঢাকা ত্যাগ করে। কিন্তু আবারো আকাশে যান্ত্রিক ত্রুটি ধরা পড়ে বিমানের একটি ইঞ্জিনে। ততোক্ষণে বিমান বেনাপোল পর্যন্ত চলে গিয়েছিল। কিন্তু পাইলট ত্রুটিপুর্ণ ফ্লাইট নিয়ে কলকাতা নামার নির্দেশনা না পেয়ে আবার ঢাকায় ফিরে আসে।

জানা গেছে, কলকাতা বিমানবন্দরে বিমানের কোনো হ্যাঙ্গার নেই। ফ্লাইটটিতে যে পরিমাণ ত্রুটি রযেছে তাতে ওই ফ্লাইটটি নিয়ে কলকাতা বিমান বন্দরে অবতরণ করলে এয়ারক্রাফটটি মেরামত করার জন্য ঢাকা থেকে ইঞ্জিনিয়ার নিয়ে যেতে হবে। তা অনেক ব্যয়বহল ও সময় সাপেক্ষ হবে। একারণে পাইলটকে এয়ারক্রাফটটি নিয়ে ঢাকায় ফিরে আসতে নির্দেশনা দেয়া হয়।

জানা গেছে, পাইলটের এই সিদ্ধান্ত মেনে নিতে পারেনি বিমানের ৫৫ যাত্রী। তাদের বক্তব্য ত্রুটিপুর্ণ এয়ারক্রাফট নিয়ে পাইলট যদি ঢাকায় ফিরে আসতে পারেন তাহলে সেটি দিয়ে অবশ্যই কলকাতা যাওয়া যেতো। পাইলট তা না করায় ক্ষুব্ধ যাত্রীরা পাইলট ও কেবিন ক্রুদের ওপর চড়াও হন। তারা শাহজালাল বিমান বন্দরেই নেমেই তাদের টিকিটের টাকা ফেরত দাবি করেন। তবে বিমান কতৃপক্ষ পরবর্তীতে একটি বোয়িং ৭৩৭ এয়ারক্রাফট দিয়ে ওই যাত্রীদের কলকাতা পাঠান।

এর আগে গত রোববারও যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বহনকারী বিমানের একটি বিশেষ ফ্লাইট গতিপথ পরিবর্তন করে তুর্কমেনিস্তান বিমানবন্দরে অবতরণ করে।


এখানে খুজুন


আরও পড়ুন