আজ রবিবার, ২৪ জুন ২০১৮ ইং, ১০ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ



ডা. মিলনের রক্তের সাথে যারা বেইমানী করেছে জাতি তাদের ক্ষমা করবে না

Published on 28 November 2016 | 4: 47 am

শহীদ ডা. মিলন দিবসের আলোচনা সভায় ডা. শাহাদাত হোসেন।

চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেন বলেছেন, স্বৈরাচার এরশাদ বিরোধী আন্দোলনে শহীদ ডা. সামশুল আলম মিলন, জিহাদ, মোজাম্মেলন, নুর হোসেনদের রক্তের বিনিময়ে অর্জিত গণতন্ত্র জাতি শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করে। আজ সেই শহীদ ডা. সামশুর রহমান মিলন দিবস। ডা. মিলনদের রক্তের বিনিময়ে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল এদেশের গণতন্ত্র। স্বৈরাচার এরশাদ পতনের মাধ্যমে এই দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। সে গণতন্ত্র আজ নির্বাসিত, গণতন্ত্রের লেবাসে চলছে স্বৈরাতন্ত্র, গণতন্ত্রের লেস মাত্র নেই। স্বৈরাচার এরশাদকে আতাত করে আজ অবৈধ সরকার গণতন্ত্রকে হত্যা করে নব্য স্বৈরাচারে পরিণত হয়েছে। যারা আজ শহীদ ডা. শামসুল আলমের রক্তের সাথে বেইমানী করে গণতন্ত্রকে হত্যা করেছে, জাতি তাদেরকে ক্ষমতা করবে না। ডা. শাহাদাত আরও বলেন, স্বৈরাচার এরশাদ বিরোধী আন্দোলনে আমরা রাজপথে ছিলেন। স্বৈরাচার এরশাদ ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য ছাত্র-জনতা, আন্দোলনকারীরা রাজপথে নামলেই নির্বিচারে গুলি চালাত। কিন্তু তারপরও ক্ষমতা টিকে থাকতে পারে নাই। ঠিক তেমনিভাবে এই নব্য স্বৈরাচার সরকারও ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য গণতন্ত্রকে হত্যা করে এবং দেশের মানুষের ভোটাধিকার হরণ করেছে। বিএনপির চেয়ারপার্সন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে গণতন্ত্র ও ভোটাধিকার আদায়ের আন্দোলনে শতশত নেতাকর্মীদের গুম, হত্যা, নির্যাতন নিপীড়ন করেছে। তাই দেশের গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের সংগ্রামে বিএনপির চেয়ারপার্সন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে পেশাজীবী সমাজকে এগিয়ে আসতে হবে।
তিনি ২৭ নভেম্বর বিকাল ৫ ঘটিকার সময় মেট্টোপলিটন সাংবাদিক ইউনিয়ন কার্যালয়ে ডক্টর এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ড্যাব) এর উদ্যোগে আয়োজিত ডা. সামশুল আলম মিলন দিবসের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত বক্তব্য রাখেন।
ড্যাব নেতা ডা. বেলায়েত হোসেন ডালীর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সাংবাদিক জাহেদুল করিম কচি। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বিএনপি নেতা ইয়াছিন চৌধুরী লিটন, বাবু টিংকু দাশ, গাজী সিরাজ উল্লাহ, ড্যাব নেতা ডা. ঈসা চৌধুরী, ডা. সরওয়ার আলম, ডা. শাহ নেওয়াজ মামুন। ডা. শাকিরুর রশিদের সঞ্চালনায় আরও বক্তব্য রাখেন তৌহিদুস সালাম নিশাদ, মোহাম্মদ আলী মিঠু, নুর হোসেন, ডা. রিফাত কামাল, ডা. মোনায়েম ফরহাদ, ডা. আরফান নিবিড়, নগর ছাত্রদল নেতা জিয়াউর রহমান জিয়া প্রমুখ।


এখানে খুজুন


আরও পড়ুন