আজ বৃহঃপতিবার, ২১ জুন ২০১৮ ইং, ০৭ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ



আগ্রাবাদে বিস্ফোরণে বাসার কেয়ারটেকার দগ্ধ

Published on 09 November 2016 | 3: 24 am

নগরীর আগ্রাবাদ সিডিএ ১৬ নম্বর সড়কে খাজা মঞ্জিল নামে একটি বিল্ডিংয়ের নিচতলায় বিস্ফোরণ হয়েছে। গত সোমবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে বিস্ফোরণের ঘটনায় মাহবুব রহমান (৪৫) নামে একজন আহত হন। তিনি ওই বিল্ডিংয়ের কেয়ারটেকার। বর্তমানে তিনি চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটের (৩৬ নম্বর ওয়ার্ড) এক নম্বর বেডে চিকিৎসাধীন। গত রাত সাড়ে ৮টার দিকে বার্ন ইউনিটের কর্তব্যরত এক ইন্টার্ন চিকিৎসক জানিয়েছেন তার শরীরের ৩০ শতাংশ পুড়ে গেছে ।

বিল্ডিংয়ের মালিক কামাল পাশা ও আহত মাহবুবের দাবি, বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে বিস্ফোরণ হয়েছে। তবে এ বিস্ফোরণের পেছনে অন্য কোনো কারণ আছে কিনা খতিয়ে দেখার দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী। ঘটনার পর প্রায় ৩৬ ঘণ্টা পার হলেও পুলিশ এ বিষয়ে অবগত নন। গত রাত সাড়ে ৮টার দিকে ডবলমুরিং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ কে এম মহিউদ্দিন সেলিম বলেন, এ বিষয়ে আমরা অবগত নই। তবে এক্ষুণি খোঁজ নিচ্ছি। ভবনের মালিক কামাল পাশা গতকাল বলেন, নিচতলায় দারোয়ানের কক্ষে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট হয়েছে। এতে আমাদের দারোয়ান মাহবুব আহত হয়। তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ৩৬ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি করিয়েছি। দারোয়ান ভেজা হাতে মোটর চালাতে গিয়েই এ ঘটনা ঘটেছে।

বিস্ফোরণ হয়েছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘হ্যাঁ, একটু আওয়াজ হয়েছিল। আসলে রুমের জানালা না থাকায় গ্যাস জমে গিয়ে বিম্ফোরণ হতে পারে। রুমটাতে রঙের ডিব্বা ও ইলেকট্রিক তার ছিল। এগুলো থেকে বিম্ফোরণ হতে পারে। বিস্ফোরণে ঘরের দরজা ভেঙে যায় উল্লেখ করে তিনি বলেন, দারোয়ান ছাড়া কেউ আহত হয়নি। তিনি বলেন, আহত দারোয়ান ৪৫ বছর ধরে কাজ করে। সে খুব বিশ্বস্ত। দারোয়ানের বাড়ি কুমিল্লায় বলে জানান তিনি।

আহত দারোয়ান মাহবুব রহমান গত রাতে সাংবাদিকদের বলেন, সোমবার সকাল ৬টায় ঘুম থেকে উঠে রুম ঝাড়ু দিয়েছি। সাতটার দিকে পানি তোলার মেশিনের সুইচ দেয়া মাত্রই প্রচণ্ড বিস্ফোরণ হয়েছে। এতে আমি আহত হই। বৈদ্যুত্যিক শর্ট সার্কিট থেকেই এ বিস্ফোরণ হয়েছে বলে দাবি করেন তিনি। তিন মেয়ে, এক ছেলের জনক মাহবুব নিজেকে পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি বলে উল্লেখ করেন।


এখানে খুজুন


আরও পড়ুন