আজ শুক্রবার, ২২ জুন ২০১৮ ইং, ০৮ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ



এম আর খানের মরদেহে সর্বস্তরের জনগণের শ্রদ্ধা

Published on 06 November 2016 | 8: 57 am

জাতীয় অধ্যাপক ও শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. এম আর খানের মরদেহে সর্বস্তরের জনগণ শ্রদ্ধা জানিয়েছে। রোববার দুপুর ১২টার দিকে তার মরদেহ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে নেওয়া হয়। সেখানে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের আয়োজনে বাংলাদেশ মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ) নেতারা, চিকিৎসক, শিক্ষক, রাজনীতিবিদসহ বিভিন্ন শ্রেণির মানুষ প্রয়াত এই চিকিৎসকের প্রতি শ্রদ্ধা জানান।

শ্রদ্ধা জানাতে এসেছেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান খান, ডা. এম আর খানের মেয়ে মেন্ডি করিম, জামাতা রেজা করিম, শিশু বিশেষজ্ঞ ড. শহীদউল্লাহ প্রমুখ।

এর আগে বেলা ১১টায় বিএসএমএমইউ প্রাঙ্গণে তার দ্বিতীয় জানাজা সম্পন্ন হয়। সেখানে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব, ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী জানাজায় অংশ নেন। আর রাজধানীর সেন্ট্রাল হাসপাতালে সকাল সাড়ে ১০টায় তার প্রথম জানাজা সম্পন্ন হয়।

জাতীয় অধ্যাপক ও শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. এম আর খানের মেয়ে মেন্ডি করিম রাইজিংবিডিকে বলেন, আব্বু কোনো দিন আমাদের সঙ্গে রাগ করেননি। কোনো অন্যায় করলে বকা দেননি। তিনি বলতেন, এমন কিছু কর না, যাতে মানুষ খারাপ বলে। তিনি আমাদের সঙ্গে যেভাবে আচারণ করতেন, রোগীদের সঙ্গে সেভাবে আচারণ করতেন। তার জন্য সবাই দোয়া করবেন। আল্লাহ তাকে জান্নাতবাসী করুন।

জাতীয় অধ্যাপক ও শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. এম আর খানের জামাতা রেজা করিম রাইজিংবিডিকে বলেন, বেলা আড়াইটায় মিরপুরে শিশু স্বাস্থ্য ফাউন্ডেশন ও বিকেল সাড়ে ৩টায় উত্তরা উইমেনস মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে তার জানাজা হবে।

তিনি আরো বলেন, উইমেনস মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে তার জানাজা শেষে মরদেহ নিয়ে যাওয়া হবে গ্রামের বাড়ি সাতক্ষীরার রসুলপুরে। রাতে যশোরে শিশু স্বাস্থ্য ফাউন্ডেশনে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। সোমবার সকাল সাড়ে ১০টায় এম আর খানের নিজের গ্রাম রসুলপুরে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তার মরদেহ দাফন করা হবে। সবাই তার জন্য দোয়া করবেন।

ডা. এম আর খান গতকাল শনিবার বিকেল ৪টা ২৫ মিনিটে রাজধানীর সেন্ট্রাল হাসপাতালে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। তার বয়স হয়েছিল ৮৮ বছর। এম আর খান বার্ধক্যজনিত বিভিন্ন জটিল রোগে গত কয়েক মাস ধরে ভুগছিলেন। তিনি সেন্ট্রাল হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন ছিলেন।

ডা. এম আর খান বাংলাদেশের শিশু চিকিৎসার পথিকৃৎ। তার জন্ম ১৯২৮ সালের ১ আগস্ট সাতক্ষীরার রসুলপুরে। ১৯৫৩ সালে এমবিবিএস পাস করেন কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ থেকে। তিনি এডিনবরা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডিটিএম অ্যান্ড এইচ ও এমআরসিপি, লন্ডন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডিসিএইচ, ঢাকার পিজি থেকে এফসিপিএস, ইংল্যান্ড থেকে এফআরসিপি ডিগ্রি লাভ করেন।


এখানে খুজুন


আরও পড়ুন