আজ শনিবার, ২৩ জুন ২০১৮ ইং, ০৯ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ



আমাদের প্রিয় শিবু স্যার ও একজন শিব বাবু

Published on 05 November 2016 | 3: 22 am

শেখ আলমগীর শাহনেওয়াজ সাগর
……………………..……………….
“নয়নে সম্মুখে তুমি নাই
নয়নের মাঝখানে নিয়েছ যে ঠাঁয় “
কি সম্বোধন করে শুরু করবো ? একজন আদর্শ শিক্ষক, খাঁটি বাংগালী, অহিংস ও অসাম্প্রদায়িক চেতনার প্রতিচ্ছবি, একজন খাঁটি ব্রাহ্মন, সংস্কৃতিসেবি, একজন আবৃত্তিকার, নাট্যকার না কি শিল্পী ?
প্রতিবেশী হওয়ায় ছোট বেলা থেকেই তাঁকে দেখেছি খুব কাছ থেকে ।
ছোট বেলায় আমি প্রথম স্টেজে উঠেছিলাম তার হাত ধরে । কবি জসিম উদ্দীনের “কবর” (এইখানে তোর দাদীর কবর ডালিম গাছের তলে, ৩০ বছর ঘুমিয়ে রেখেছি দুই নয়নের জলে) কবিতায় তার নাতি হিসাবে। তখনও গান শুরু করেনি ।
অসাধারন আবৃত্তি করতেন স্যার । কবিতা আবৃত্তি শেষে ওয়ান মোর শব্দ আর হাততালিতে কলা ভবনের সেই আজও কানে বাজে ।
রবীন্দ্র সংগীত গাইতেন। “তুই ফেলে এসেছিস কারে মন মনরে আমার” গানটি স্যার কতবার যে শুনেছেন আমার কাছ থেকে । গানটি তিনিই আমাকে শিখিয়েছিলেন । সরকারী কার্গিল হাই স্কুলে শিক্ষকতা করেছেন দীর্ঘদিন ।
গুরুগম্ভীর স্যার যখন বাংলা ক্লাস নিতেন তখন ওনার শুদ্ধ বাংলা উচ্চারণ শুনতে পুরো হল নিস্তব্ধ হয়ে যেত ।
সাদা ধুতি আর পাঞ্জাবী পরে টাউন রাস্তার একপাশ দিয়ে যখন হাটতেন মানুষের শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় সিক্ত হতেন। বিকেলে বসতেন তার সেই প্রিয় “বইঘরে”(সন্দ্বীপ টাউনের ১ম বই এর দোকান)।
রাত অবদি চলতো টাউনের এলিট শ্রেনি আর সংস্কৃতি প্রেমিদের আড্ডা । ছিলেন সন্দ্বীপ পাবলিক লাইব্রেরি ও কলা ভবনের সম্পাদক । এখানেই তিনি জীবনের বেশীর ভাগ সময় কাটিয়েছেন ।
বরশী দিয়ে মাছ ধরা ছিল তার নেশা । টাউনের দিঘিতে নিয়মিতই বরশি দিয়ে মাছ ধরতেন ।
তার একমাত্র ছেলে কানাই চক্রবর্তী আমাদের প্রিয় কানুদা । তিনি আছেন বাসসের (বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থা) উপ প্রধান প্রতিবেদক হিসাবে। স্যার এর বড ও মেঝ মেয়ে রানুদি ও রিতাদি কোথায় জানিনা। আরেক মেয়ে গুটটুদি আছেন সবপরিবারে এমেরিকায় । গুটটুদির হাজব্যান্ড সাবেক জনপ্রিয় ছাত্রনেতা আমাদের প্রিয় চন্দন দা  (চন্দন দত্ত)।
গত ৩ বৎসর আগে এই মহান মানুষ গড়ার কারিগর প্রিয় শিক্ষক বাবু শিব শংকর চক্রবর্তী আমাদের ছেড়ে চলে গিয়েছেন ।
দেশে ও বিদেশে তার হাজার হাজার ছাত্র ছাত্রীর শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় তিনি অমর হয়ে থাকবেন ।
তিনি স্বর্গবাসী হোন, এই কামনায় ।
তার প্রিয় দুটি লাইন :
“যে পথ দিয়ে চলে এলি
সে পথ আবার ভুলেই গেলিরে ।
কেমন করে ফিরবিরে তোর দ্বারে
মন মনরে আমার ।

 


এখানে খুজুন


আরও পড়ুন