আজ বুধবার, ২০ জুন ২০১৮ ইং, ০৬ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ



সন্দ্বীপের গাছুয়ায় দুর্বৃত্তদের হামলায় মারাত্মক ভাবে আহত কাশেমের জ্ঞান ফিরেনি দু’দিনেও

Published on 02 November 2016 | 5: 07 am

সোনালী নিউজ প্রতিবেদক :: গত  ৩১ অক্টোবর রাতে সন্দ্বীপ উপজেলার গাছুয়া ভূঁইয়া বাড়ির মরহুম আহম্মদ উল্লাহ সারেং বাড়ির কেয়ার টেকার আবুল কাসেম (৫৫) কে রাতের কোন এক সময় দুর্বৃত্তরা কুপিয়ে মারাত্মক আহত করে রেখে যায়। বর্তমানে তিনি চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সংকটাপন্ন অবস্থায়  চিকিৎসাধীন।  এখনো জ্ঞান ফিরে নাই। ধারনা করা হচ্ছে দুর্বৃত্তরা ডাকাতি করতে আসলে কেয়ার টেকার আবুল কাসেম বাধা দেয়ায় ডাকাতরা তাকে প্রচন্ড মারধর করে।
উল্লেখ্য মরহুম আহম্মদ উল্লাহ সারেং ভূঁইয়ার বাড়িটা প্রায় ১১ একর জায়গার উপর একলা বাড়ি। উনার তিন ছেলে। বড় ছেলে বোরহান উদ্দিন বর্তমানে কৃষি ব্যাংক এর এজিএম। থাকেন পরিবার সহ চট্টগ্রামে। বাকি দুই ছেলে আনোয়ার ও ফোরকান পরিবার সহ আমেরিকায় থাকেন।
ঘটনার বিবরণ : কেয়ার টেকার কাসেমের জন্য যথারীতি তার স্ত্রী পরদিন সোমবার সকালে বাড়ি থেকে নাস্তা এনে দেখতে পান বাড়ির বিল্ডিংয়ের দরজা খোলা। ভিতরে ঢুকে দেখেন নিচে রক্ত এবং কাসেম অচেতন হয়ে পড়ে আছে। কাশেমকে অচেতন অবস্থায় দেখে তার স্ত্রীর কান্নাকাটি ও চিৎকারে আশেপাশের সবাই এসে প্রথমে কাশেমকে গাছুয়া হাসপাতালে নিয়ে যান। ডাঃ অনেক চেষ্টা করেও জ্ঞান ফিরাতে না পারায় দ্রুত চট্টগ্রাম মেডিকেলে নেয়া হয়েছে। এখনো কাশেমের জ্ঞান ফিরে নাই। কাশেমের শরীরে কয়েকটি সেলাই করা হয়েছে। কৃষি ব্যাংক এর এজিএম বোরহান উদ্দিন মেডিকেলে রাত দিন থেকে কেয়ার টেকারকে বাচানোর সর্বোচ্চ চেষ্টা করছেন।
উল্লেখ্য কেয়ার টেকার কাসেমের বাড়ি গাছুয়া হাদিয়ারগো বাড়ি। উনার চার মেয়ে দুই ছেলে। দুই মেয়ে বিয়ে দিয়েছেন বাকিরা এসএসসি পরীক্ষা দিবে এবং কলেজে পড়ে।


এখানে খুজুন


আরও পড়ুন