আজ বুধবার, ২০ জুন ২০১৮ ইং, ০৬ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ



জাতীয় যুবদিবস আজ

Published on 01 November 2016 | 6: 13 am

বাংলাদেশের মোট জনসংখ্যার এক বৃহৎ অংশ যুবসমাজ, যা ক্রমশ বাড়ছে । যুবরাই জাতির প্রাণশক্তি, উন্নয়ন ও অগ্রগতির প্রধান নিয়ামক। যুব সমাজের দৃপ্ত পদচারণায় বিশ্ব এগিয়ে চলেছে এবং অনাগত দিনগুলোতেও তা অব্যাহত থাকবে।যুবসমাজ যেকোনো দেশের অতিমূল্যবান জনশক্তি।

জাতীয় যুবদিবস আজ। এবছর জাতীয় যুবদিবসের মূল প্রতিপাদ্য বিষয় হচ্ছে ‘আত্মকর্মী যুবশক্তি, টেকসই উন্নয়নের মূলভিত্তি’। রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ বলেছেন,  উল্লেখ করে তিনি বলেন, তাদের উদ্ভাবনী ক্ষমতা, অমিত তেজ ও সাহস, কর্মস্পৃহা ও কর্মক্ষমতা দেশ ও জাতির উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।

এ বছর দিবসটি উপলক্ষে প্রদত্ত  বাণীতে রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ বলেন,  বাংলাদেশের ইতিহাস যুবদের গৌরবময় অবদানে ভাস্বর। তাদের উদ্দীপনা ও সাহসিকতায় বাঙালি জাতি বিভিন্ন সঙ্কট উত্তরণে পেয়েছে দিশা। দেশের সার্বিক উন্নয়ন সাধনে তাই যুবসম্প্রদায়কে দক্ষ মানবসম্পদে পরিণত করার বিকল্প নেই।

রাষ্ট্রপতি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের ‘সোনার বাংলা’ গড়তে বর্তমান সরকার ‘রূপকল্প ২০২১’ ও ‘রূপকল্প ২০৪১’ কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। এ কর্মসূচির সার্থক বাস্তবায়নে যুবদের ভূমিকা অনস্বীকার্য।

দিবসটি উপলক্ষে প্রদত্ত  বাণীতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, যুবকরাই জাতির প্রাণশক্তি, দেশের মূল্যবান সম্পদ এবং দেশের মানুষের স্বপ্ন ও সম্ভাবনার প্রতীক। যুবদের দক্ষ মানবসম্পদে পরিণত করার লক্ষ্যে সরকার বিভিন্ন প্রকল্প ও কর্মসূচি বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে। সরকারের গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপের অন্যতম হচ্ছে ‘ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচি’। এ কর্মসূচির মাধ্যমে অস্থায়ী কর্মসংস্থানের পাশাপাশি জাতির গঠনমূলক কর্মকান্ডে তাদের সম্পৃক্ত করা হচ্ছে।

২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের দেশ এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশে রুপান্তরের জন্য সরকার রূপকল্প ২০২১ এবং রূপকল্প ২০৪১ বাস্তবায়নে কাজ করে যাচ্ছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, জাতিসংঘ সূচিত ‘টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা’ অর্জনেও তাঁদের প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। এসব লক্ষ্য অর্জনে যুবদের অংশগ্রহণের কোনো বিকল্প নেই।

রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে দিবসটি  আজ যথাযোগ্য মর্যাদার সাথে পালিত হবে। এ উপলক্ষে আজ ঢাকায় ওসমানী মিলণায়তনে জাতীয় যুবদিবস-২০১৬’র উদ্বোধনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হবে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী ড. শ্রী বীরেন শিকদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন যুব ও ক্রীড়া উপমন্ত্রী আরিফ খান জয় এবং যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মোঃ জাহিদ আহসান রাসেল। বক্তব্য রাখবেন যুব ও ক্রীড়া সচিব কাজী আখতার উদ্দিন আহমেদ ও যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আনোয়ারুল করিম।

অনুষ্ঠানে আত্মকর্মসংস্থান প্রকল্প স্থাপনে দৃষ্টান্তমূলক অবদান রাখার স্বীকৃতি হিসেবে ১৪ জন সফল আত্মকর্মী যুব ও ৫ জন সফল যুব সংগঠকসহ মোট ১৯ জনকে জাতীয় যুব পুরস্কার প্রদান করা হবে।

 


এখানে খুজুন


আরও পড়ুন