আজ বৃহঃপতিবার, ২১ জুন ২০১৮ ইং, ০৭ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ



কথিত ট্রাক ও ট্র‍্যাজেডি! প্রেক্ষিত : সন্দ্বীপ

Published on 16 October 2016 | 6: 16 pm

:: শামসুল আরেফিন শাকিল ::
যুগের চাহিদায় কৃষি প্রধান অর্থনীতির বাংলাদেশে, মাঠে কৃষি কাজে লাঙল-বলদের জায়গায় শক্তিশালী স্থান করে নিল পাওয়ার টিলার। কৃষি বিপ্লবে যুগান্তকারী ভূমিকা রাখা কৃষক বন্ধু এ পাওয়ার টিলারের বিকল্প কৃষকের কাছে আর অন্য কিছু আছে আমার জানা নাই। কম সময়ে বেশী জমি চাষের জন্যে তৈরি সেই পাওয়ার টিলার অতি লোভী মানুষের হাতে পড়ে বিচ্ছিন্ন দ্বীপ জনপদ সন্দ্বীপে হয়ে গেল লাভজনক মালবাহী ট্রাক!
পাওয়ার টিলারের পেছনে স্থানীয় ওয়ার্কশপে হাতে বানানো ট্রলি সংযোজন করে মালবাহী ট্রাক হিসাবে সন্দ্বীপ জনপদে ব্যাপক ব্যবহার করে দিনে দিনে অঢেল অবৈধ অর্থ বিত্তের মালিক হচ্ছেন একটি সংঘবদ্ধ বেনিয়া চক্র !
যা রিতীমত অন্যায় এবং সম্পূর্ণ বেআইনি। অথচ প্রশাসনের নাকের ডগায় এ অপকর্ম বছরের পর চলে আসলেও প্রশাসনের উদাসীনতা অবাক করার মত! BRTA এর অনুমোদন ও ফিটনেস বিহীন এ সকল যন্ত্রদানব যখন সন্দ্বীপের রাজপথ থেকে মেঠোপথ বেপরোয়াভাবে দাপিয়ে বেড়ায় তখন ঝড়ে পড়ে তাজা প্রাণ! এ পর্যন্ত স্কুলগামী শিশু থেকে পথচারী বৃদ্ধ ও সাধারণ অনেক মানুষকে সন্দ্বীপের মাটিতে চাপা দিয়ে হত্যা এবং গুরুতর আহত করেছে এসব কথিত ট্রাক চালকেরা! যারা এসব চালাচ্ছে তাদের নেয় কোন প্রশিক্ষন ও দক্ষতা এবং ড্রাইভিং লাইসেন্স কি তা কি তারা বুঝে?!
এ যন্ত্র দানবগুলোর মালিক যারা, তারাও অনেকক্ষেত্রে প্রভাবশালী ও বিবেকবোধহীন অর্থলিপ্সু দু’পায়া দানব প্রকৃতির! গ্রামের সাধারণ মানুষের অনেকেই আইনকানুন বুঝেনা, তাই কোনটা বৈধ আর কোনটা অবৈধ তা তারা জানেও না। আর প্রভাবশালীদের পেশী ও কালো টাকার দানবীয় শক্তির কাছে যেখানে স্থানীয় প্রশাসন প্রায় নতজানু হয়ে থাকে সেখানে সাধারণ পাব্লিকের অবস্থা কি তা সহজেই অনুমেয়। এসব বেআইনি পরিবহন দ্বারা এ পর্যন্ত কত নিরিহ মানুষ আহত, নিহত ও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তার সঠিক হিসাব কি স্থানীয় প্রশাসনের কাছে আছে?
স্থানীয় সামাজিক ও মানবাধিকার সংগঠনগুলোর ভূমিকাও এক্ষেত্রে প্রশ্নবিদ্ধ। নিহত ও আহতদের পাশে আইন ও অভিযুক্তরা কি ভূমিকা রাখছে তা সবাই দেখছে, আমি নাই বা লিখলাম। এ লেখার মাধ্যমে দাবী রাখছি, অবিলম্বে ক্ষতিগ্রস্থদের ন্যার্য ক্ষতিপূরণ দেয়া হোক এবং এ সমস্ত যন্ত্রদানব রাস্তা থেকে উচ্ছেদে যার যা দায়িত্ব তা যেন যথাযথ পালন করেন।
প্রিয় বিবেক – ব্যাক্তিগত লাভ লোকসানের হালখাতা স্রোতস্বিনী সন্দ্বীপ চ্যানেলে ছুড়ে ফেলে, মানুষ হিসাবে মানুষ পরিচয়ে মানবতার সেবায় মানবতার পাশে বার বার জাগো এবং জাগিয়ে রাখো।
 
লেখক: উপ সম্পাদক, সোনালী সন্দ্বীপ, ১৬ অক্টোবর, ২০১৬


এখানে খুজুন


আরও পড়ুন