আজ সোমবার, ১৮ জুন ২০১৮ ইং, ০৪ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ



পুলিশি নির্যাতনের শিকার র‌্যাব : সমাধানের আশ্বাস

Published on 14 October 2016 | 4: 23 am

র‍্যাব সদস্যরা দায়িত্ব পালনকালে পুলিশের মারধরের শিকার হচ্ছেন। এমন অভিযোগ করেছেন র‍্যাবের ডিজি বেনজীর আহমেদ। পুলিশের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ এনে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব বরাবরে একটি চিঠি পাঠিয়েছেন র‍্যাবের ডিজি বেনজীর আহমেদ। এ পরিপ্রেক্ষিতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সুষ্ঠু সমাধানের আশ্বাস দিয়েছে।

জানা গেছে, বেনজির আহমেদ চিঠিতে উল্লেখ করেছেন : ‘পুলিশ সদস্যরা লাঠি ও রাইফেল দিয়েও আঘাত করে রক্তাক্ত করে সদস্যদের।’ ওই চিঠিতে বলা হয়েছে-‘সারাদেশের র‌্যাব ক্যাম্প থেকে প্রতিনিয়ত র‌্যাব অসংখ্য আভিযানিক ও গোয়েন্দা দল এবং প্রশাসনিক দল সরকারি কাজে প্রয়োজনে ইউনিফর্ম বা সাদা পোশাকে সশস্ত্র বা নিরস্ত্র অবস্থায় সরকারি যানবাহনে বিভিন্ন স্থানে যাতায়াত করে। সম্প্রতি এসব অভিযান বা সরকারি কার্যক্রম পরিচালনাকালে র‌্যাবের আভিযানিক ও গোয়েন্দা দলের সদস্যরা র‌্যাবের পরিচয় দেওয়ার পরেও পুলিশ বাহিনীর কিছু সদস্য তাদের সঙ্গে অশ্লীল ভাষায় আক্রমণাত্মক কথা বলে, বিভিন্ন বাহিনী সম্পর্কে কটূক্তিপূর্ণ মন্তব্যসহ শারীরিকভাবে হেনস্থা করেছে। কিছু ক্ষেত্রে র‌্যাবের সদস্যদের লাঠি ও রাইফেল দিয়ে আঘাত করে রক্তাক্ত করেছে পুলিশ।’

র‌্যাবের ডিজি চিঠিতে লিখেছেন- ‘এ ব্যাপারে এখনই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা না নিলে পরবর্তী সময়ে অস্ত্রধারী এই দুটি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর মধ্যে এরূপ ঘটনা ঘটলে যেকোনও সময়ে তা বড় ধরনের দুর্ঘটনা সৃষ্টি করতে পারে। যা পুলিশ বাহিনী তথা সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করবে। এ সব ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য পত্রালাপ করা হলেও কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। এমনকি এ বিষয়ে নেওয়া কার্যক্রম সম্পর্কেও র‌্যাবকে অবগত করা হয়নি। যা র‌্যাব সদস্যদের মনোবল ভাঙন ধরাতে পারে। একইসঙ্গে আভিযানিক কর্মকাণ্ডে বিঘ্ন সৃষ্টি করছে।’

র‍্যাব ডিজির এমন অভিযোগের কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে কিনা জানতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব ড. মো. মোজাম্মেল হক খানের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হয়। তিনি পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, উভয়পক্ষের কথা শুনে সমাধান করা হবে। এটা কোনো সমস্যা নয়।

‘সশস্ত্র দুই বাহিনীর মধ্যকার দ্বন্দ্ব কোনো অপ্রীতিকর ঘটনার দিকে যাওয়ার কোনো আশঙ্কা রয়েছে কি?’- এমন প্রশ্নের জবাবে সচিব বলেন, এ ধরনের ঘটনা ঘটবে না। সিনিয়র শাস্তি দেয় জুনিয়রকে। সেই সময় জুনিয়রের হাতে অস্ত্র থাকে, তাই বলে কি ঝামেলা হয়। আমরা চেষ্টা করব ভুল বোঝাবুঝি যা হয়েছে সেটুকু যেন আর না বাড়ে। তবে এ ধরনের ঝামেলা অতিদ্রুত শেষ করার চেষ্টা করব দুই পক্ষের কথা শুনে।

তবে পুলিশের বিরুদ্ধে র‍্যাবের অভিযোগ নিয়ে কোনো প্রকার মন্তব্য করতে চাননি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। তিনি পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, এসব ঘটনা নিয়ে আপনাদের এখনো লেখার সময় হয়নি।

প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার দুপুরে পুলিশ সদর দফতরে মোবাইল অ্যাপস উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে আইজিপি এ কে এম শহীদুল হক বলেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পুলিশের বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ করেননি র‌্যাবের ডিজি। তাছাড়া আইজিপিকে বাদ দিয়ে তিনি এমন অভিযোগ করতেও পারেন না। কোনো অভিযোগ করতে চাইলে তা আইজিপি বরাবরই করতে হবে।

তবে এক পর্যায়ে আইজিপি বলেন, র‍্যাবের কাছ থেকে তিনি একটি অভিযোগ পেয়েছেন। অভিযোগটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।


এখানে খুজুন


আরও পড়ুন