আজ শনিবার, ২৩ জুন ২০১৮ ইং, ০৯ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ



চট্টগ্রামে ঝুঁকি বাড়লেও বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক নেই ।। বিশ্ব মানসিক স্বাস্থ্য দিবস

Published on 10 October 2016 | 3: 28 am

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (চমেক) প্রতিদিন আন্তঃবিভাগে (ইনডোর) মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যা নিয়ে প্রায় ৬০ থেকে ৭০ জন রোগী ভর্তি থাকেন। আর বহির্বিভাগে (আউটডোর) দৈনিক চিকিৎসা নিতে আসেন অন্তত ৪০ থেকে ৫০ জন রোগী। এছাড়া চমেকের আন্ত:বিভাগীয় ডাক্তারদের পরামর্শে (লিয়াজুঁ) চিকিৎসা নেন আরও অন্তত ৫ থেকে ১০ জন রোগী। অন্যদিকে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিসংখ্যান মতে, দেশের মোট জনসংখ্যার ১ থেকে ২ শতাংশ গুরুতর এবং ১৫ থেকে ২০ শতাংশ লঘু মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যায় আক্রান্ত। সে হিসেবে চট্টগ্রামে গুরুতর মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ১ লক্ষ ৬০ হাজার ৪৩৫ জন এবং লঘু মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যায় আক্রান্ত রোগী ১৬ লক্ষ ৪ হাজার ৪৩৫ জন। অর্থাৎ চট্টগ্রামের ৮০ লক্ষাধিক লোকের মধ্যে প্রায় ১৬ লক্ষ থেকে ১৮ লক্ষ মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যায় আক্রান্ত। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের মানসিক স্বাস্থ্য বিভাগ এবং জেলা সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে। এদিকে চট্টগ্রামে মানসিক রোগ সংক্রান্ত ঝুঁকি বাড়লেও বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের অভাবে জনগণ পর্যাপ্ত চিকিৎসাসেবা পাচ্ছেন না বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। চট্টগ্রামে মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যায় আক্রান্ত রোগীর তুলনায় বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক খুবই অপ্রতুল জানিয়ে জেলা সিভিল সার্জন ডা. আজিজুর রহমান সিদ্দিকী বলেন, মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যায় ভুক্তভোগী রোগীর জন্য চট্টগ্রাম বিভাগে সর্বসাকুল্যে মাত্র ২০ জনের মত চিকিৎসক আছে। সেজন্য মানুষ যথাযথ সেবা পাচ্ছেন না। তিনি বলেন, দেশের অন্তত ৮ থেকে ১০ শতাংশ মানুষ জীবনের কোন না কোন সময় মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যায় ভুগে থাকেন। সুতরাং বিষয়টি আমাদের ভাবতে হবে। যদি আমাদের মন সুস্থ থাকে তবে ৭০ শতাংশ মানুষ সুস্থ থাকবে। মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ে অসচেতনতার কারণে সাম্প্রতিক জঙ্গি তৎপরতায় উচ্চবিত্ত পরিবারের তরুণদের জড়িয়ে পড়ার প্রসঙ্গ টেনে ডা. আজিজুর রহমান সিদ্দিকী বলেন, আমরা শারিরীক সুস্থতার দিক থেকে এগিয়ে গেলেও মানসিক সুস্থতার জন্য এখনো লড়ছি। যে কারণে সমাজে তরুণদের মাঝে হতাশা ও জীবনবোধ সম্পর্কে অস্থিরতার দরুণ জঙ্গি তৎপরতা, যৌন নিপীড়িন, পর্নোগ্রাফিতে আসক্তি ও মানসিক বিকলাঙ্গতা বাড়ছে। অন্যদিকে চট্টগ্রামে মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যা দিনদিন বাড়ছে। বিষয়টি উদ্বেগজনক জানিয়ে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মানসিক স্বাস্থ্য বিভাগের বিভাগীয় প্রধান মহিউদ্দিন এ. সিকদার দৈনিক আজাদীকে বলেন, আমাদের দেশে মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ে চিকিৎসা সেবা গ্রহণের বিষয়টি অনেকটা উপেক্ষিত। এখানে হাসপাতালে গিয়ে মানসিক স্বাস্থ্য সেবা নেওয়াটাকে অনেকে সহজভাবে নেয় না। যে কারণে এই রোগে অপচিকিৎসার হার এদেশে সবচেয়ে বেশি। চট্টগ্রামের মানুষেরা তো অনেক বেশি কুসংস্কারাচ্ছন্ন। তারা এসব ক্ষেত্রে পানি পড়া, তাবিজ ও ঝাঁড়ফুঁকে বিশ্বাসী। অথচ আমাদের দেশের যে কোন রোগে আক্রান্ত রোগীর প্রায় ৪০ শতাংশের মানসিক স্বাস্থ্যগত সমস্যা আছে। সেক্ষেত্রে জনসচেতনতার কোন বিকল্প নেই।

প্রসঙ্গত, আজ ২৪ তম বিশ্ব মানসিক স্বাস্থ্য দিবস। ‘সকলের জন্য প্রাথমিক মানসিক স্বাস্থ্য সহায়তা’ এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে আজ বিশ্বব্যাপী দিবসটি পালিত হচ্ছে। এ উপলক্ষে চট্টগ্রামে নগরীর প্রবর্তক মোড় এলাকায় সকাল সাড়ে ৯ টায় শোভাযাত্রার আয়োজন করা হয়েছে। শোভাযাত্রার উদ্বোধন করবেন সিভিল সার্জন ডা. আজিজুর রহমান সিদ্দিকী। এরপর সাড়ে ১০টায় জেলা শিল্পকলা একাডেমির আর্ট গ্যালারি হলে অনুষ্ঠিত হবে প্রাথমিক মানসিক স্বাস্থ্য সহায়তা বিষয়ক লেকচার ওয়ার্কশপ। ওয়ার্কশপ পরিচালনা করবেন বাংলাদেশ থেরাপিউটিক থিয়েটার ইনস্টিটিউট (বিটিটিআই) এর প্রশিক্ষক ওবায়দুল ইসলাম। এছাড়া সকাল ১১টায় একটি আলোচনা সভারও আয়োজন করা হয়েছে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন চট্টগ্রাম বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক ডা. আলাউদ্দিন মজুমদার।

 


এখানে খুজুন


আরও পড়ুন