আজ শনিবার, ২৩ জুন ২০১৮ ইং, ০৯ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ



২০১৯ বিশ্বকাপে সরাসরি বাংলাদেশ!

Published on 05 October 2016 | 3: 19 am

২০১৯ বিশ্বকাপের এখনও প্রায় তিন বছর বাকি। নিয়ম অনুযায়ী ২০১৭ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ওয়ানডে র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষ আট দল সরাসরি বিশ্বকাপে খেলার সুযোগ পাবে। তবে র‌্যাংকিংয়ে আটের নিচে থাকলেও স্বাগতিক দেশ হিসেবে সরাসরি খেলতে পারবে ইংল্যান্ড।

সেক্ষেত্রে ইংল্যান্ড ও শীর্ষ সাত দল সরাসরি বিশ্বকাপে খেলবে। এ সময়ের মধ্যে এফটিপিতে যেসব ম্যাচ রয়েছে এবং এফটিপির বাইরের খেলা যুক্ত হলে র‌্যাংকিংয়ে অনেক উলোট-পালোট হতে পারে। কিন্তু বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) জানিয়েছে, এফটিপি অনুযায়ী ২০১৭ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত টাইগাররা সম্ভাব্য সবচেয়ে খারাপ ফল করলেও বাংলাদেশের সরাসরি ২০১৯ বিশ্বকাপে খেলা নিশ্চিত!

কিন্তু একটু পরই আইসিসি জানায়, নির্দিষ্ট সময়ে ইংল্যান্ডকে বাদ রেখে র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষ সাত দল সরাসরি বিশ্বকাপে খেলার সুযোগ পাবে। র‌্যাংকিংয়ে পরের চারাটি দলের সঙ্গে আরও ছয়টি দল দুটি গ্র“পে ভাগ হয়ে কোয়ালিফাইং রাউন্ডে খেলবে। এখান থেকে শীর্ষ দুটি দল আট দলের সঙ্গে যুক্ত হয়ে বিশ্বকাপ লড়াইয়ে নামবে।

কাল বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান বলেন, ‘বিশ্বকাপে সরাসরি জায়গা করে নিতে যে র‌্যাংকিং হবে, সেখানে বাংলাদেশ পাঁচেই থাকবে! নিচে (র‌্যাংকিংয়ে) যাওয়ার কোনো সুযোগ নেই।’

তিনি বলেন, ‘আমরা হিসাব করে দেখেছি, অস্বাভাবিক কিছু যদি না হয় তাহলে এই হিসাবই থাকবে। এজন্যই আমরা আলাদা কিছু ভাবছি না।’ কিন্তু এফটিপির বাইরে অন্য কোনো দেশ যদি সিরিজ আয়োজন করে তাহলে কী হবে জানতে চাইলে নাজমুল হাসান বলেন, ‘এটা বর্তমান এফটিপি হিসাব করেই ধরা হয়েছে। এর বাইরে যদি সিরিজ হয় সেটা ভিন্ন কথা। এছাড়া আমরা যদি খুব খারাপ খেলতে থাকি, সব ম্যাচ হারতে থাকি তাহলে একটা ঝুঁকির মধ্যে পরে যাব।’

তবে বিসিবি সভাপতি নিজের বিশ্বাস থেকে দাবি করছেন, বাংলাদেশ সব ম্যাচে হারবে না। বিসিবি ধরেই নিয়েছে নিউজিল্যান্ড, শ্রীলংকা বা আয়ারল্যান্ড সফরে অন্তত দু’একটা ম্যাচ হলেও জিতবে বাংলাদেশ। ২০১৯ বিশ্বকাপে সরাসরি খেলার সুযোগটা অনুমাননির্ভর কিনা জানতে চাইলে নাজমুল হাসান বলেন, ‘আইসিসিতে বসে আমরা হিসাব করেছিলাম। আইসিসিকে নিয়েই করেছিলাম। ওখানে তারা পরিষ্কারভাবে বলেছে এরকম কোনো সুযোগ নেই (আটের নিচে নামার)। আমরা আর নিচে নামব না।’


এখানে খুজুন


আরও পড়ুন