আজ শনিবার, ১৮ আগষ্ট ২০১৮ ইং, ০৩ ভাদ্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ



প্রধানমন্ত্রীকে কটূক্তি : ঢাকা, গাজীপুর ও টাঙ্গাইলে মামলা

Published on 29 September 2016 | 11: 04 am

ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার হুমকি এবং বঙ্গবন্ধু ও তার বাবার প্রতি মানহানিকর উক্তির অভিযোগে চৌধুরী ইরাদ আহমেদ সিদ্দিকীর বিরুদ্ধে ঢাকার সিএমএম আদালতসহ গাজীপুর, কালিয়াকৈর ও টাঙ্গাইলে পৃথক চারটি মামলা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার ঢাকা মহানগর হাকিম আদালত, গাজীপুরের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-২ ও টাঙ্গাইল সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে তিনটি মামলা দায়ের করা হয়। এর আগে গত মঙ্গলবার রাতে কালিয়াকৈর থানায় একটি মামলা হয়।

চৌধুরী ইরাদ আহমেদ সিদ্দিকী বিএনপির স্থায়ী কমিটির প্রাক্তন সদস্য বর্তমানে বিএনপি থেকে বহিষ্কৃত চৌধুরী তানভীর আহমেদ সিদ্দিকীর ছেলে।

ঢাকা মহানগর হাকিম সারাফুজ্জামান আনছারীর আদালতে মামলাটি করেন যুক্তরাষ্ট্রপ্রবাসী আওয়ামী লীগ নেতা ইসমাইল মো. গোলাম রসুল।

মামলার বাদীপক্ষের আইনজীবী ঢাকা বারের ক্রীড়া সম্পাদক অ্যাডভোকেট বাহালুল আলম বাহার জানান, বৃহস্পতিবার সকালে এ মামলা দায়ের করা হয়েছে। আদালত বাদীর জবানবন্দি গ্রহণ করে পরে আদেশ দেবেন বলে জানিয়েছেন।

এদিকে আজ সকালে গাজীপুরের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের স্পেশাল পিপি ও গাজীপুর আইনজীবী পরিষদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মো. শাহজাহান বাদী হয়ে গাজীপুরের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-২-এ একটি মামলা দায়ের করেন।

বাদী অ্যাডভোকেট মো. শাহজাহান জানান, গাজীপুরের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক শহিদুল ইসলামের আদালতে শুনানি শেষে বিচারক মামলাটি জয়দেবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে এফআইআরভুক্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।

এর আগে এ ঘটনায় গত মঙ্গলবার রাতে মুক্তিযোদ্ধা ও গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুর রশিদ বাদী হয়ে কালিয়াকৈর থানায় যোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি আইনে অপর একটি মামলা দায়ের করেন।

অন্যদিকে একই ঘটনায় টাঙ্গাইলে ইরাদ আহম্মেদ সিদ্দিকীর বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগ এনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। সকালে টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জোয়াহেরুল ইসলাম জোয়াহের বাদী হয়ে টাঙ্গাইল সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলাটি দায়ের করেন।

আদালতের বিচারক সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুল্লাহ আল মাসুম মামলাটি আমলে নিয়ে তা এফআইআর করতে টাঙ্গাইল মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নাজমুল হাসান ভূঁইয়াকে নির্দেশ দিয়েছেন।।

মামলাগুলোর অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত ২৫ সেপ্টেম্বর রাতে ইরাদ সিদ্দিকী তার ফেসবুক আইডিতে স্ট্যাটাসে  উল্লেখ করেন, ‘শেখ হাসিনাকে গুপ্তহত্যা সম্ভব নয়। কারণ শেখ হাসিনার চারিদিকে ভারতের বিশেষ নিরাপত্তার চাদর রয়েছে। ভারতীয়রা সরাসরি শেখ হাসিনার নিরাপত্তার বিধান করছে। কারণ শেখ হাসিনা বাংলাদেশে ভারতের স্বার্থেরই প্রতিনিধিত্ব করছেন। শেখ হাসিনাকে গুপ্তহত্যা ছাড়া বাংলাদেশে ভারসাম্য ও গণতন্ত্র ফেরানো সম্ভব নয়।’

একই দিন রাতে আরেকটি স্ট্যাটাসে একটি ছবি পোস্ট করেন। সেখানে একটি ঘোড়ার তৈরি চিত্রের ছবি পোস্ট দিয়ে বঙ্গবন্ধুর পিতাকে বলিয়াদির জমিদারের ঘোড়ার ভৃত্য বলে উল্লেখ করেন। এ ছাড়া গত ১৫ সেপ্টেম্বর রাতে আরেকটি স্ট্যাটাসে স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছবির নিচে মধ্য অঙ্গুলি প্রদর্শন করিয়ে ট্রল করে পোস্ট দেন। সেখানে তিনি লেখেন, ‘ভাস্কর্য হাজারো শর্বের প্রতিনিধিত্ব করে’।

 


এখানে খুজুন


আরও পড়ুন