আজ শনিবার, ২১ জুলাই ২০১৮ ইং, ০৬ শ্রাবণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ



স্বপ্ন ভেংগে যায় নতুন করে স্বপ্ন দেখতে

Published on 24 August 2016 | 6: 19 am

এম এম কামরুল হাসান শিপন ::

৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥
লেখক : একজন পুলিশ কর্মকর্তা, চট্টগ্রাম এর  নিউ মার্কেট এলাকায় ডিউটি করতে গিয়ে মুখোমুখি হন জীবন যুদ্বের এই নারী যোদ্ধর। লিখে ফেলেন একটি হৃদয়গ্রাহী প্রতিবেদন। সোনালী নিউজের পাঠকদের জন্য তা তুলে ধরা হল।

৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥
সব মানুষ বেঁচে থাকে আশা নিয়ে,যখন মানুষ স্বপ্ন দেখে না বা স্বপ্ন দেখার সাধ হারিয়ে ফেলে তখন সে মরন কে আলিংগন করতে চায় । তবে বেশীর ভাগ মানুষ স্বপ্ন ভাংগার পর নতুন করে স্বপ্ন দেখতে শুরু করে।
জীবনের কত আশা, কত সাধ, কত স্বপ্ন নিয়ে ঘর বেধেছিলো এই বোনটি, কিন্তু বিধাতার খেলা বা নিয়তির খেলায় পরাজিত হয়ে তিনটি মেয়েকে নিয়ে কোন মতে তিনবেলার ডাল ভাত যোগার করতে তার সকাল সন্ধ্যা জীবন যুদ্ধ চালিয়ে যাওয়া কারন তার স্বামী রোড এক্সিডেন্টে মারা যাওয়ার পর নিজেকে নিয়ে আর কোন চিন্তা নেই তার, সব কিছুই তার তিন মেয়েকে নিয়ে।
সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত চিটাগং নিউ মার্কেট এলাকায় এই ভাবে পান সিগারেটের ফেরি করেন মেয়েটি।
কথা প্রসংগে সে বলছিলো স্যার অনেক চেষ্টা করেছি অন্য কাজ করে জীবন চালাতে পারিনি, কারন তিনটি মেয়েকে একা রেখে চাকরীও করতে পারছিনা, বড় মেয়েটা ৮ম শ্রেনীতে পরে বাকী দুইটা তার পর পর পরছে কি করে যে কি করবো কিছুই বুঝতে পারছিনা।
মহিলার কথা শুনে খারাপ লাগছিলো বল্লাম এত্ত কম জিনিস কেনো বলল স্যার বেনসন আর গোল্ডলীফ সিগারেট কিনতে টাকা লাগে বেশী, আর লাভও কম, যদি কেউ একটা সিগারেট নিয়ে যায়, আর টাকা না দেন, তাহলে তো আমার চালান সব শেষ হয়ে যাবে। আমি শুনে অবাক হলাম, এমন অসহায় মানুষটির কাছ থেকেও মানুষ টাকা না দিয়ে জিনিস নিয়ে যেতে পারে। পরে বোনটিকে এক প্যাকেট বেনসন ও এক প্যাকেট গোল্ডলীফ সিগারেট কিনে দিয়ে বললাম, বোন যদি কোন সমস্যায় পরোতো ফোন দিও।
সবাই দোয়া করবেন বোনটি যেন তার মেয়ে গুলোকে নিয়ে তার ভেংগে যাওয়া স্বপ্ন পুনরায় দেখতে পারেন এবং তার লক্ষ্যে পৌছাতে পারেন।

 


এখানে খুজুন


আরও পড়ুন