আজ মঙ্গলবার, ২৪ এপ্রিল ২০১৮ ইং, ১১ বৈশাখ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ



নির্বাচিত “দিবসের সেরা কবিতা” (বাংলাদেশ সাহিত্যচর্চা ও বিকাশ কেন্দ্র, চট্টগ্রাম)

Published on 17 August 2016 | 7: 20 pm

বাংলাদেশ সাহিত্যচর্চা ও বিকাশ কেন্দ্র, চট্টগ্রামেরপ্রতিদিনের সেরা কবিতা নির্বাচনপ্রতিযোগীতায় গ্রুপের বিজ্ঞ বিচারকমন্ডলীর সুনিপূণ বিবেচনায় কবি মুতাকাব্বির মাসুদ এর “কমলা ঠোঁটে স্বাধীনতা” কবিতাটি– ‘দিনের সেরা কবিতা নির্বাচিত হয়েছে। সাথে সাথে কবিতাটি আগামী শুক্রবার রাত ১১.০০ টায় অনুষ্ঠিতব্য এ সপ্তাহের সেরা কবিতা নির্বাচনের জন্যও মনোনীত হয়েছে।

কবিকে “বাংলাদেশ সাহিত্যচর্চা ও বিকাশ কেন্দ্র”, চট্টগ্রামের পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন।
শুভেচ্ছান্তে –
এম.এ.হাশেম আকাশ
সহসভাপতি,বাংলাদেশ সাহিত্যচর্চা ও বিকাশ কেন্দ্র।
৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥৥
কমলা ঠোঁটে স্বাধীনতা
—————————–
মুতাকাব্বির মাসুদ
দৃষ্টির দুরন্ত দিগন্তে বদলেছি আমি
পদ্মার ঢেউয়ে,যমুনার বাঁকে
‘ কালোরাতে ‘ কাশবনের নীরক্ত ঠোঁটে
আমাকে হারিয়ে খুঁজি নীল নক্ষত্রের ঘরে
উদ্দাম প্রজাপতির উদ্ভিন্ন শরীরে
উদ্ধত সুন্দর ভালোবেসেছি
উদগত কোমল ধ্বংসের ভেতর
অসুস্থ যা কিছু দিয়েছি কবর
নিষিদ্ধ অতীতের ঘরে
শুধু একটি ডাকে ভেঙ্গেছি দেয়াল
উড়িয়েছি খুশির ঘুড়ি মেঘের সুতোয়
নাটাই দিয়েছি তুলে দোয়েলের শীষে

প্রিয়ার কালোচুলের আঁধার ঘরে
স্বপ্ন নিয়ে খেলি তার জয়বাংলাচোখে
দেখি আমার সোনার জমিন শকুনের দখলে

মুক্তির সৌরভ খুঁজি
নিষিদ্ধ গলির গণতান্ত্রিক উনুনে
দেখি ঈশ্বর নির্বিঘ্নে খেলা করে
যমুনার জলে
হঠাৎ মগজের করিডোরে,মনকাড়া সুরে
নীলাম্বর কম্পিত হয় স্লোগানে স্লোগানে
” তোমার আমার ঠিকানা
পদ্মা মেঘনা যমুনা ”

প্রিয়ার সবুজ আঁচলে নতুন উদ্দীপনা
কমলাঠোঁটে স্বাধীনতার ঝিলিক
আমার রক্তে স্বপ্ন-উন্মাদনা
চুম্বনে চুম্বনে সিক্ত করি, বৃত্ত দিয়ে রক্তচাঁদ

ইতিহাস কথা বলে বুলবুলির রাঙা ঠোঁটে
কোমল পালকে উড়ে উড়ে
অচেনা সাতচল্লিশ চেনারূপে
হেঁটে আসে বায়ান্নর ঘরে
বায়ান্ন উড়ে উড়ে কৃষ্ণচূড়ার ঘরে
নগ্নপায়ে শহিদ মিনারে

অবশেষে মেঘনার কোল ঘেঁষে
ছেষট্টির উদ্দীপিত, রঙ করা শাড়ির ভাঁজে
কোকিলের লাল চোখে
উনসত্তর রক্তপ্রত্যয়ে খেলা করে
আসাদের শার্টে- বন কৃষ্ণচূড়ার উদোম শরীরে

এ দারুণ বদলে যাওয়া সময়
আমাকে করেছে সন্ন্যাস
উদাস হয়েছি, উড়েছি সবুজ টিয়ার ঠোঁটে
আমি আমাকে খুঁজি প্রিয়ার বাসন্তীবুকে
আমাকে হারিয়ে ফেলেছি
স্বপ্নশালিকের গুচ্ছ গুচ্ছ মিছিলে

নতুন স্বপ্নজয়ে মেতেছি আবার
রক্তলেখায় উড়াল স্বপ্নে
উদ্ধত বাজপাখির ঠোঁটে
ক্রমাগত স্বপ্নপুরুষ খুঁজেছি চিহ্নিত সময়ে
উত্তপ্ত কড়াইয়ে- প্রিয়ার যৌবনিচোখে
বন্দী পাখির নিত্যমুক্তির চঞ্চল নৃত্যে

দেখি উনসত্তর দীপ্ত পায়ে
পৌঁচে গেছে একাত্তরের আমবাগানে
আমি যাঁকে খুঁজি-অদৃশ্য বচন তাঁর
দৃশ্যমান হয় মগজের ঘরে
পেয়েছি স্বপ্ন আজন্ম অহংকারের স্বপ্ন
পেয়ে যাই আমাকে- পিতার বলিষ্ঠ কণ্ঠে
উদ্দাম উচ্ছল অজর পঙক্তিতে…
“এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম
এবারের সংগ্রাম – স্বাধীনতার সংগ্রাম “


Advertisement

আরও পড়ুন