ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটে নতুন ট্রেন ‘সোনার বাংলা’ ।। শনিবার উদ্বোধন, যাত্রী পরিবহন রোববার থেকে

বাংলাদেশ রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলে আগামী সপ্তাহে যুক্ত হচ্ছে দ্বিতীয় বিরতিহীন ট্রেন ‘সোনার বাংলা এক্সেপ্রেস’। ঢাকাচট্টগ্রামগামী নতুন এই আন্তঃনগর ট্রেন আগামী ২৫ জুন ঢাকার কমলাপুর রেলস্টেশনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্বোধন করার কথা রয়েছে।

রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, সোনার বাংলা বাণিজ্যিকভাবে যাত্রী পরিবহন শুরু করবে রোববার থেকে। এতে ১৬ বগিতে স্নিগ্ধা (শীতাতপ চেয়ার), শোভন চেয়ার, এসি বাথ মিলিয়ে ৭৪৬টি আসন থাকবে। প্রতিদিন সকাল ৭টায় কমলাপুর স্টেশন থেকে ছেড়ে চট্টগ্রাম পৌঁছাবে বেলা ১২টা ৪০ মিনিটে। একই ট্রেন চট্টগ্রাম স্টেশন থেকে ছাড়বে বিকাল ৫টায়। ঢাকা পৌঁছাবে রাত ১০টা ৪০ মিনিটে। নতুন এই ট্রেনের ভাড়া বাড়ছে না। সুবর্ণ এক্সপ্রেসের মতোই থাকছে ভাড়া। ট্রেনটি শুধু ঢাকার বিমানবন্দর স্টেশনে থামবে। এটি হবে ঢাকাচট্টগ্রাম পথে চলাচলকারী দ্বিতীয় বিরতিহীন ট্রেন। এর আগে প্রথম বিরতিহীন আন্তঃনগর ট্রেন সুবর্ণ এক্সপ্রেস চলাচল শুরু করে ১৯৯৮ সালের ১৪ এপ্রিল। রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের জিএম মো. আবদুল হাই বলেন, আগামী ২৫ জুন কমলাপুর রেলস্টেশনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সোনার বাংলা এক্সপ্রেসের উদ্বোধন করার কথা রয়েছে।

তিনি জানান, ইন্দোনেশিয়া থেকে আনা নতুন ষোলটি বগি দিয়েই আন্তঃনগর ট্রেনটি যাত্রী পরিবহন করবে। শনিবার ছাড়া সপ্তাহের বাকি ছয়দিন ট্রেনটি চলাচল করবে।

ঢাকাচট্টগ্রাম রেলপথে সুবর্ণ এক্সপ্রেস ছাড়াও তুর্ণা নিশিথা, মহানগর গোধূলী, মহানগর এক্সপ্রেস ট্রেন চলাচল করে। ‘সোনার বাংলা এক্সপ্রেস’ চালু হলে এ পথে আন্তঃনগর ট্রেনের সংখ্যা দাঁড়াবে পাঁচটিতে। এর বাইরে ঢাকাচট্টগ্রাম পথে দুটি মেইল ট্রেনও চলাচল করে।

পূর্ব রেলের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, সোনার বাংলা এক্সপ্রেসের ১৬টি বগির মধ্যে চারটি এসি চেয়ায়ের (স্নিগ্ধা) প্রতিটিতে ৫৫ করে ২২০ আসন, সাতটি শোভন চেয়ারের বগিতে ৪২০ আসন, দুটি এসি বাথে ৩৩ করে ৬৬ আসন এবং দুটি খাবার গাড়ির সঙ্গে সংযুক্ত ৪০টি আসন রয়েছে। এর বাইরে একটি পাওয়ার কার থাকছে ট্রেনটিতে। খাবার সরবরাহের দায়িত্বে থাকবে পর্যটন কর্পোরেশন।

পূর্বাঞ্চলের পরিবহন বিভাগের কর্মকর্তারা জানান, আজ বুধবার থেকে নতুন এই ট্রেনের টিকিট বিক্রি শুরু হতে যাচ্ছে। প্রথম বিরতিহীন আন্তঃনগর ট্রেন সুবর্ণ এক্সপ্রেস চট্টগ্রাম থেকে সকাল ৭টায় ছেড়ে ঢাকা পৌঁছায় বেলা ১২টা ৪০ মিনিটে। ঢাকা থেকে বিকাল ৩টায় ছেড়ে রাত ৮টা ৪০ মিনিটে পৌঁছানোর সময় নির্ধারিত রয়েছে। সুবর্ণ এক্সপ্রেস শুক্রবার ছাড়া সপ্তাহের বাকি ছয়দিন ঢাকাচট্টগ্রাম পথে বিমানবন্দর ছাড়া অন্য কোনো স্টেশনে থামে না।

Mahabubur Rahman Mahabubur Rahman

Leave a Reply

Top
%d bloggers like this:
Web Design BangladeshBangladesh Online Market