আজ সোমবার, ২০ আগষ্ট ২০১৮ ইং, ০৫ ভাদ্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ



২ মন্ত্রীর মাঝে নারী নির্যাতক

Published on 20 June 2016 | 8: 24 am

ভোলার চরফ্যাশনে তরুণীকে সুপারি গাছের সাথে বেঁধে নির্যাতনের প্রধান আসামী যুবলীগ নেতা কামরুল ইসলাম কাজলসহ বাকি আসামীরা প্রকাশ্য ঘুরে বেড়ালেও পুলিশ তাদের গ্রেফতার করছে না বলে অভিযোগ উঠেছে। সর্বশেষ গত শুক্রবার ঢাকার গুলশান ক্লাবে ভোলা জেলা সমিতির ইফতার মাহফিলে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ ও পরিবেশ ও বন উপমন্ত্রী আবদুল্যা আল ইসলাম জ্যাকবের সঙ্গে কাজলকে দেখা গেছে।

এ ঘটনায় বাদীসহ এলাকাবাসীর মাঝে চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে। তারা মনে করছে প্রভাবশালী মহলের ছত্রছায়ায় থাকার কারণে পুলিশ কাজলকে গ্রেফতার করতে গড়িমসি করছেন। তবে পুলিশের পক্ষ থেকে এটি সত্য নয় বলে দাবি করা হয়েছে।

নির্যাতিত নুর নাহার অভিযোগ করে বলেন, গত ৪মে রাতে চরফ্যাশন থানায় ৭ জনকে বিবাদী করে মামলা দায়ের করার পর পুলিশ ২ জনকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে পাঠায়। রহস্যজনক কারণে প্রধান আসামী কাজলসহ বাকি ৪ আসামিকে পুলিশ এখনো গ্রেফতার করছে না। মামলার কয়েকদিন পর থেকে কাজল ঢাকা- নারায়নগঞ্জ অবস্থান করলেও বাকি ৪ আসামি এলাকায় ঘোরা-ফেরা করছেন। বিষয়টি থানা পুলিশকে জানানো হলেও তারা কোনো গুরুত্ব দেয় না।

নুর নাহার আরো অভিযোগ করেন, কাজল তাকে প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছে।  কেটে  নদীতে ভাসিয়ে দেবে বলেও হুমকি দেয়।

এ প্রসঙ্গে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই মো. মহাসিন বলেন, বাদীর মামলার পরিপ্রেক্ষিতে তার ডাক্তারি পরীক্ষা করানো হয়েছে। দুই/একদিনে মধ্যে রিপোর্ট পেয়ে যাব। বাদীকে আসামীরা হুমকি দিলে থানায় জিডি করতে হবে।

তিনি বলেন, পুলিশ এলাকায় গেলে আসামিরা কোথায় আছে কেউ সঠিক তথ্য দিতে পারছে না। তবে আসামিদের গ্রেফতারের জন্য পুলিশের  চেষ্টা চলছে বলেও জানান মামলার আইয়ু ।

উল্লেখ্য, চরফ্যাশন উপজেলার নুরাবাদ ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের নজির মাঝির হাট এলাকার নজির মাঝির ছেলে উপজেলা যুবলীগের সদস্য মো. কামরুল ইসলাম কাজলের (৩০) সাথে প্রায় এক বছর ধরে পাশ্ববর্তী এলাকার মো. মনিরের স্ত্রী নুর নাহারের (২৬) পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক চলছিল। বিষয়টি স্বামী মনির টের পেলে নাহারকে তার বাবার বাড়িতে রেখে আসেন। এ সুযোগে কাজল, নুর নাহারকে বিয়ে করার আশ্বাস দিয়ে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলে। এলাকায় এ সম্পর্কের বিষয়টা জানাজানি হয়ে গেলে গত ৪ মে সকালে নাহারকে বাড়িতে নিয়ে সুপারি গাছের সাথে বেঁধে নির্যাতন চালায় যুবলীগ নেতা ও তার পরিবারের লোকজন।


এখানে খুজুন


আরও পড়ুন