আজ বুধবার, ১৫ আগষ্ট ২০১৮ ইং, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ



সন্দ্বীপের মাইটভাঙ্গা ইউনিয়নে যুবকের আত্মহত্যা

Published on 10 June 2016 | 4: 23 am

সোনালী নিউজ প্রতিবেদক :: সন্দ্বীপ উপজেলার মাইটভাঙ্গা ইউনিয়নের ফেরদৌসুর রহমান শাহীন (২৩) নামে এক যুবক গত ৯ মে ভোর রাতে (সেহরির পর) নিজে রুমের দরজা বন্ধ করে আত্মহত্যা করেছে বলে খবর সন্দ্বীপ থানা সুত্রে খবর পাওয়া গেছে। আত্মহত্যার প্রকৃত কারণ জানা যায় নি। তার বাড়ি মাইটভাঙ্গা আলী মুহুরীর বাড়ি। সে মুদি দোকানদার ফখরুল ইসলামের পুত্র। শাহীন কিছুদিন আগে দুবাই থেকে দেশে আসে বলে জানা গেছে। পারিবারিক সুত্রে জানা যায় সবার সাথে সেহরি খেয়ে সে নিজ রুমে আত্মহত্যা করে।

একটি সুত্র থেকে জানা যায় শাহীন একটা মেয়েকে ভালোবাসত আর সেটা তার পরিবার মেনে নেয়নি ! তাই সে আত্মহত্যা করেছে বলে ধারনা করছে ওই সুত্র। এ ব্যাপারে সন্দ্বীপ থানায় একটি ইউডি মামলা হয়েছে, যার নং-১৩।

সন্দ্বীপে ইদানিং আত্নহত্যার প্রবণতা আশংকাজনক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। তবে এ ক্ষেত্রে প্রেম গঠিত কারনই বেশী। গত এক বছরে বেশ কিছু যুবক আত্নহত্যার মত জগন্য পাপ কাজ করেছে শুধুমাত্র প্রেমিককে না পাওয়া সংক্রান্ত কারণে। নিজের জন্মদাতা মা-বাবা, আদরের ভাই বোনের কথা চিন্তা না করে শুধুমাত্র একজন প্রেমিক এর জন্য জীবন বিসর্জন দেয়া কতটুকু যৌক্তিক ? এমন প্রশ্নের জবাবে একজন সমাজ মনস্ক ব্যাক্তি জানালেন- জীবন সম্পকে তাদের কোন ধারনাই নেই এমন যুবকরাই প্রেম করছে আবার একটু সমস্যা হলে নিজের জীবন বিসর্জন দিচ্ছে। এটা সমাজের জন্য অভিশাপ ছাড়া আর কিছুই নয়। তা ছাড়া একজন আত্নহত্যাকারী দুনিয়া এবং আখেরাত দুটোই হারায় এই শিক্ষাটাই এসব যুব-তরুণরা পায় না।


এখানে খুজুন


আরও পড়ুন