আজ সোমবার, ২৩ জুলাই ২০১৮ ইং, ০৮ শ্রাবণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ



চালক-হেলপারকে আটকের প্রতিবাদ ।। বন্দরে ট্রেইলর শ্রমিকদের চার ঘণ্টা কর্মবিরতি

Published on 01 June 2016 | 3: 03 am

সড়কে অবৈধ পার্কিংয়ের অভিযোগে ১২ চালকহেলপারকে আটকের প্রতিবাদে চট্টগ্রাম বন্দরের অভ্যন্তরে কর্মবিরতি পালন করেছে প্রাইম মোভার ও ট্রেইলর শ্রমিকরা। তাদের বাধার মুখে বন্দরের সবগুলো গেইট বন্ধ হয়ে যায়। ফলে অচল হয়ে পড়ে পণ্য খালাস প্রক্রিয়া। পরে বিকেল পাঁচটার দিকে গাড়ির রাখার স্থানের ব্যবস্থা ও আটক চালকসহকারীদের মুক্তি দিলে কর্মবিরতি প্রত্যাহার করে নেয় শ্রমিকরা। তবে চার ঘণ্টা বন্ধ থাকার কারণে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। বন্দর সূত্রে জানা গেছে, বন্দরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রোকেয়া পারভীন চট্টগ্রাম বন্দরের দুই নম্বর গেইটের পাশের সড়কে অবৈধভাবে পার্কিং করায় মঙ্গলবার দুপুরে ১২ জন চালকহেলপারকে আটক করে। সড়কে অবৈধ পার্কিং করবে না এমন মুচলেকা নিয়ে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়। বিষয়টিকে কেন্দ্র করে গাড়ির রাখার স্থানের ব্যবস্থার দাবিতে দুপুর ২টা থেকে কর্মবিরতি পালন শুরু করে প্রাইম মোভার ও টেইলর শ্রমিক ইউনিয়ন। ফলে বন্দরের সব গেইট দিয়ে মোভার ও টেইলর চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এতে বন্দরের পণ্য খালাস প্রক্রিয়া হঠাৎ থমকে যায়। চট্টগ্রাম প্রাইম মোভার ও টেইলর শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবিরের দাবি আটক চালকহেলপারদের মুক্তির দাবিতেই কর্মবিরতি পালন করেছেন তারা। তিনি বলেন, বন্দরে প্রবেশের সময় চালকহেলপার ও গাড়ির জন্য নিরাপত্তা পাস নিতে হয়। এছাড়া গেইটে গাড়ির ডকুমেন্ট প্রদর্শন ও পণ্যের কাগজপত্র জমা দিতে হয়। এই সময়ে গাড়ি রাখার জায়গা ঠিক করে দিতে হবে।

চালকরা অবৈধভাবে সড়কে পার্কিং করেছিল অভিযোগ করে চট্টগ্রাম বন্দরের পরিচালক (নিরাপত্তা) লে.কর্নেল আবদুল গাফফার বলেন, সামনে রমজান। সড়ক যানজটমুক্ত রাখার বিষয়ে আমাদের উপর চাপ আছে। তাই সড়কে অবৈধভাবে পার্কিং করায় চালকহেলাপারদের আটক করা হয়েছিল।

এদিকে বিকেল পাঁচটার দিকে কর্মসূচি প্রত্যাহার করে নেয় শ্রমিক নেতৃবৃন্দ। চট্টগ্রাম প্রাইম মোভার ও টেইলর শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির বলেন, শ্রমিকদের মুক্তি এবং গাড়ির রাখার স্থানের ব্যবস্থা করে দিতে চট্টগ্রাম বন্দরের পরিচালক (নিরাপত্তা) লে.কর্নেল আবদুল গাফফার আশ্বাস দিয়েছেন। তাই আমরা কর্মবিরতি প্রত্যাহার করে নিয়েছি। আগামী ৮ অথবা ৯ জুন চট্টগ্রাম বন্দর চেয়ারম্যানের সঙ্গে আমরা বসবো। সেখানে আমাদের সব সমস্যা নিয়ে আলোচনা হবে। প্রায় চারঘণ্টা কর্মবিরতির কারণে বন্দরের গেইটগুলোতে সারি সারি ট্রাক বন্দরে প্রবেশের অপেক্ষায় সড়কের উপর জড়ো হয়। ফলে সড়কে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। এতে ওই সড়কে চলাচলকারী যাত্রীরা দুর্ভোগে পড়েন।


এখানে খুজুন


আরও পড়ুন