আজ সোমবার, ২৩ জুলাই ২০১৮ ইং, ০৮ শ্রাবণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ



তনুর ময়নাতদন্ত বোর্ডের প্রধানকে হত্যার হুমকি

Published on 25 May 2016 | 3: 28 am

কুমিল্লা সরকারি ভিক্টোরিয়া কলেজের ছাত্রী সোহাগী জাহান তনু হত্যার প্রথম ও দ্বিতীয় ময়নাতদন্ত বোর্ডের প্রধান ডা. কামদা প্রসাদ সাহাকে (কে পি সাহা) চিঠি দিয়ে হত্যার হুমকি দেওয়া হয়েছে। তিনি কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগের বিভাগীয় প্রধান।

মঙ্গলবার দুপুরে তিনি এ চিঠি পান বলে নিশ্চিত করেছেন।

কামদা প্রসাদ সাহা অভিযোগ করে বলেন, ‘অজ্ঞাত উড়ো চিঠিতে আমাকে হত্যার হুমকি দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও চিঠিতে বলা হয়েছে, তনু হত্যার প্রথম ময়নাতদন্ত সঠিক ছিল না।  তনুর মা বাবার কথাই সঠিক।’

এ বিষিয়ে থানায় সাধারণ ডায়েরি করবেন বলে জানিয়েছেন ডা. কে পি সাহা।

এর আগে পুলিশ ধর্ষণের সন্দেহের কথা জানালেও ১০ দিন পর কুমিল্লা মেডিকেল কলেজের চিকিৎসকরা ময়নাতদন্তের প্রতিবেদনে ধর্ষণের আলামত পাওয়া যায়নি বলে জানান।

পরবর্তীতে থানা পুলিশ ও ডিবির হাত ঘুরে তদন্তের দায়িত্ব পাওয়া সিআইডি কয়েক দফায় ঘটনাস্থলে গিয়ে আলামত সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য ঢাকায় নিয়ে আসে।

সিআইডির কুমিল্লা ও নোয়াখালী অঞ্চলের দায়িত্বে থাকা বিশেষ সুপার নাজমুল করিম খান বলেন, ‘গত ১৬ মে যে ডিএনএ টেস্ট করা হয়েছে, তাতে ধর্ষণের আলামত পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় তিনজনের জড়িত থাকার নমুনা পাওয়া গেছে।’

গত ২০ মার্চ ময়নামতি ক্যান্টনমেন্ট এলাকা থেকে তনুর লাশ উদ্ধার করা হয়। তনু হত্যা মামলায় অজ্ঞাতনামা কয়েকজনকে আসামি করে মামলা করা হয়। মামলাটি বর্তমানে ডিবি থেকে নিয়ে সিআইডি তদন্ত করছে। তবে তনু হত্যার জড়িতদের এখনো শনাক্ত করা যায়নি।

আলোচিত এ হত্যাকাণ্ডের পর দেশে বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ নানা প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করেন।


এখানে খুজুন


আরও পড়ুন