আজ বৃহঃপতিবার, ১৯ জুলাই ২০১৮ ইং, ০৪ শ্রাবণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ



গলায় ছুরি ধরে কিশোরীকে পালাক্রমে ধর্ষণ

Published on 09 May 2016 | 2: 28 am

চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ায় দরজা ভেঙে ঘরে ঢুকে কিশোরীর গলায় ছুরি ঠেকিয়ে তাকে পালাক্রেমে ধর্ষণ করেছে কয়েকজন যুবক।

শনিবার গভীররাতে উপজেলার ইসলামপুর ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের কাউখালী রাস্তার মাথা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

ধর্ষণের শিকার ১৩ বছরের ওই কিশোরী একজন দিন মজুরের মেয়ে। গুরুতর অবস্থায় তাকে প্রথমে উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে চট্টগ্রাম মেডিকেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে পুলিশ চারজনকে আটক করেছে। তারা হলেন- জোরের কুল গ্রামের মুফিজুল হকের ছেলে সাহেদ আলম (২৭), সাদেক নগর গ্রামের মৃত মুন্সি মিয়ার ছেলে নুরুল ইসলাম (২২), হরিনা টিলা এলাকার মৃত নুরুল ইসলামের ছেলে মো. নাজিম (২৬) ও বড়ংছড়ি নতুন পাড়া এলাকার মো. রফিকের ছেলে মো. ফারুক (২৪)।

ধর্ষিতার মা জানান, রাতে তিনি তিন ছেলে ও মেয়েকে নিয়ে ভাড়া বাসায় ঘুমিয়ে পড়েন। ধর্ষিতার বাবা ট্রাক ভর্তি ইট নিয়ে চট্টগ্রাম শহরে যান।

এই সুযোগে রাত আড়াইটার দিকে তিন যুবক দরজা ভেঙে ঘরে প্রবেশ করে। এরপর প্রথমে তারা তার মেয়ের গলায় ছুরি ধরে ধর্ষণ করতে থাকে। এক পর্যায়ে তিনি বিষয়টি টের পেয়ে চিৎকার দিলে তার গলায়ও ছুরি ধরা হয়।

এ সময় ঘরের বাইরেও দু’জন অস্ত্র নিয়ে পাহারায় ছিল। একদল চলে গেলে বাইরের ওই দু’জন এসে ফের কিশোরীকে ধর্ষণ করে।

কিশোরীর মা আরও জানান, এক পর্যায়ে তিনি কৌশলে বের হয়ে প্রতিবেশীদের ডাকতে গেলে ধর্ষকরা পালিয়ে যায়।

পরে তিনি সন্দেহজনক কয়েকজনের নাম জানালে স্থানীয়রা চারজনকে আটক করে রানীরহাট পুলিশ ফাঁড়িতে সোপর্দ করে।

রাঙ্গুনিয়া উপজেলা হাসপাতালের চিকিৎসক আয়শা পারভিন জানান, কিশোরীর অবস্থা ভালো না। এজন্য তাকে চমেক পাঠানো হয়েছে।

রাঙ্গুনিয়া থানার ওসি মো. হুমায়ুন কবির বলেন, ভিকটিমকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে পাঠানো হয়েছে।

আটক চারজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। আর এ ঘটনায় একটি মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও জানান তিনি।


এখানে খুজুন


আরও পড়ুন